শৈলকুপায় দিনকাল ও মানবজমিন পত্রিকার সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন মামলা

273
gb

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহের শৈলকুপা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক দিনকাল পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি শাহীন আক্তার পলাশ এবং মানবজমিন ও নবচিত্র পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি ওয়ালিউল্লাহসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। শামরিন আক্তার নামে এক মহিলা শৈলকুপা থানায় এই মামলা করেন। পুলিশ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলাটি রেকর্ড করে তদন্ত করছেন। তবে আসামীদের ভাষ্যমতে জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে সম্পুর্ন মিথ্যা ভাবে এই মামলা করা হয়েছে। এ নিয়ে জেলাব্যাপী সাংবাদিকদের মাঝে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। বাদী শারমিন আক্তার অভিযোগ পত্রে উল্লেখ করেছেন, শৈলকুপা শহরে স্কুল মার্কেটে তার তৃতীয় তলা ভবনের সিড়ি খোলা পেয়ে আসামীরা ছাদে উঠেন এবং বাদীর বোন মারিয়া ও মেয়ে পুস্পিতার গায়ে হাত দেন। এ সময় আসামীরা মহিলাদের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেন ও কিলঘুষি মেরে জখম করেন। এ বিষয়ে শৈলকুপা প্রেসক্লাবের সভাপতি শাহীন আক্তার পলাশ বলেন, শৈলকুপা শহরে চৌরাস্তা মৌড়ের ভবনটি আমি ৪ শতক জমির উপর নির্মান করি আমি। যার সমান সমান মালিক আমি ও আমার মেয়ে তানিশা। কিন্ত আমার সাবেক স্ত্রী শারমীন আক্তার তানিয়া জোর পূর্বক ভবনটি দখল করার চেষ্টা করে। এ নিয়ে আমি থানায় জিডি করি। স্থানিয় ভাবে সালিশের দিন ধার্য থাকলেও সালিশ বাদ রেখে মেয়ের জায়গার অজুহাতে ভবনটির ২য় তলা দখলে নেয়। এরপর নিচ তলা প্রেসক্লাবকে ভাড়া দেয়া রুমসহ তালা কেটে ঘরের মালামাল লুট করা কালে বাধা দিলে সে আমার সহ ৯ জনের নামে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মিথ্যা মামলা দায়ের করে। বিষয়টি নিয়ে শৈলকুপা থানার ওসি আলমগীর হোসেন বলেন, আসামী শাহিন আক্তার পলাশ তার সাবেক শ্যালিকাকে গলা টিপে ধরেছে। এই জমি নিয়ে অনেক শালিসও হয়েছে। তিনি বলেন, বাদী মামলা দিয়েছে এখন বিষয়টি তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।