মৌলভীবাজারে সৎ মা’কে চা বাগানে নিয়ে প্রাণে মারার চেষ্টা

20
gb

বিশেষ প্রতিনিধি :: গতকাল বুধবার (০৫-০৮-২০ইং) দুপুরে মৌলভীবাজারে সৎ মাকে দাওয়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে গিয়াসনগর প্রেমনগর চা-বাগানে নিয়ে প্রাণে মারার চেষ্টা করে সৎ ছেলে।
আহত ব্যাক্তি হলেন ১১ নং মোস্তফাপুর ইউনিয়নের মোস্তফাপুর এলাকার মোবারক খানের ২য় স্ত্রী রোবেনা বেগম।
তিনি জানান, তাহার সৎ ছেলে তুয়েল খাঁন ঈদের দাওয়াত উপলক্ষে আমাকে বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা তাহার মোটর সাইকেল করে আমাকে গিয়াসনগর প্রেমনগর চা-বাগানে নিয়ে যায়। যাওয়ার পর একটি তুচ্ছ বিষয় নিয়ে তুয়েল খান এর সাথে কথাকাটি হয়। ঐ সময় তুহেল খান ও তাহার মামাতো ভাই মহসিন সহ ২/৩ জন আসিয়া আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিমন্দ করে। আমি প্রতিবাদ করিলে তুয়েল আমাকে দা দিয়ে আমার মাথা লক্ষ্য করে ছেদ মারিলে সেই ছেদ আমি বাম হাত দিয়ে ফিরানোর সময় আমার বাম হাতরে কব্জি উপরে ছেদ পড়িয়া মারাত্বক কাটা রক্তাক্ত জখম করে। আমি চিৎকার দিলে আমাকে গাছের সথে ধাক্কা মারিয়া নাক,মুখ ফাটিয়া রক্তাক্ত জখম করে। মহসিন ও তাহার সাথিগন আমাকে মাটিতে ফেলে কাঠের বর্গা,বাশের লাঠি,লোহার রড দিয়ে মারপিট করে। এবং আমার গলা থেকে স্বনের চেইন নিয়ে যায়।
জানা যায় তাকে মাটিতে ফেলা দেখে স্থানীয় মানুষেরা মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করে। এখন ও সে চিকিৎসাদিন অবস্থায় রয়েছে এবং এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।