স্বাধীন বাংলাদেশকে সফল ক্রীড়া সংগঠক ছিলেন শেখ কামাল : ড. নিম চন্দ্র ভৌমিক

14
gb

সাবেক রাষ্ট্রদুত ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক ড. নিম চন্দ্র ভৌমিক বলেন, বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ পুত্র শেখ কামাল মুক্তিযুদ্ধকে সংগঠিত করেছে জেনারেল ওসমানীর এডিসি হিসেবে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছেন। স্বাধীন বাংলাদেশকে আধুনিক বাংলাদেশ হিসেবে গড়ার লক্ষ্যে শেখ কামাল আবাহনী ক্রীড়া চক্র প্রতিষ্ঠা করেন। এই ক্রীড়া চক্রের মাধ্যমেই আজ ক্রিকেট জগতে বিশ্বের কাছে একটি সম্মানজনক অবস্থান গ্রহণ করেছে।

তিনি বলেন, আজ বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস ও বন্যার কারণে অধিকাংশ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত। তাই মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল শক্তির ঐক্যের মাধ্যমে করোনা ভাইরাস ও বন্যা দুর্যোগ থেকে রক্ষা করা যায়।

বুধবার (৫ আগস্ট) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ পুত্র, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভাই মুক্তিযোদ্ধা আবাহনী ক্রীড়া চক্রের প্রতিষ্ঠাতা সাবেক ছাত্রনেতা শেখ কামালের ৭১তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগের সভাপতি এম.এ জলিলের সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য রাখেন জয় বাংলা মঞ্চের সভাপতি মুফতি মাসুম বিল্লাহ নাফিয়ী, সাংবাদিক ও সাবেক ছাত্রনেতা মানিক লাল ঘোষ, বাংলাদেশ ন্যাপের ভাইস চেয়ারম্যান স্বপন কুমার সাহা, জাতীয় স্বাধীনতা পার্টির চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজু, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ মোস্তফা কামাল, বাংলাদেশ জাসদের অন্যতম নেতা হুমায়ুন কবির, বিশিষ্ট আলেম ক্বারী আসাদুজ্জামা, নারী নেত্রী এলিজা রহমান, সাবিয়া খাতুন প্রমুখ।

সভাপতির ভাষণে এম.এ জলিল বলেন, শেখ কামাল দেশকে স্বাধীন করেছিল পাকিস্তানের হাত থেকে গণমানুষের মুক্তির লক্ষ্যে। আজ আমাদের সেই গণমানুষের মুক্তির জন্য চারটি সমস্যা বিশেষভাবে জলোচ্ছ্বাস, বন্যা, নদী ভাংগন ও ভূমি সমস্যা। এই চারটি সমস্যা সমাধানের মাধ্যমে দেশ হবে উন্নত। আসুন আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে এই চারটি সমস্যার সমাধান করি।

মানিক লাল ঘোষ বলেন, শেখ কামাল স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন বাংলাদেশের সর্বস্তরের মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য। আসুন আমরা সবাই ৬৯, ৭০, ৭১ সনে যেভাবে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হয়েছিলাম শেখ কামালের জন্মদিনে আমরা আবার মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল শক্তির ঐক্য কামনা করি। এই ঐক্যের মাধ্যমেই শেখ কামালের স্বপ্ন বাস্তবায়িত হবে।