গারমেন্টস শ্রমিকদের নিয়ে নির্মম খেলা বন্ধ করুন : কৃষক-শ্রমিক মুক্ত আন্দোলন

73
gb
5

 

অনতিবিলম্বে গারমেন্টস শ্রমিকদের নিয়ে অমানবিক নির্মম খেলা বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছে জাতীয় কৃষক-শ্রমিক মুক্তি আন্দোলন।

শনিবার (৪ এপ্রিল) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে সংগঠনের আহ্বায়ক এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, যুগ্ম আহ্বায়ক মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা ও সমন্বয়ক মো. মহসিন ভুইয়া এই আহ্বান জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে তারা বলেন, রবিবার থেকে গারমেন্টস কারখানা খোলার যে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে তা আত্মঘাতি ও আত্যাহত্যার শামির। এর ফলে হাজার হাজার শ্রমিক চাকরি চলে যাবার ভয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আবার কারখানায় ফিরছেন। এদিকে করোনা সংক্রমণ এড়াতে সরকার ১১ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি বাড়িয়েছে। সড়ক মন্ত্রী জানিয়েছেন ১১ তারিখ অব্দি যানবাহন চলাচলও বন্ধ থাকবে। তাহলে গারমেন্টস কারখানা কেন খুলতে হবে, কার স্বার্থে খুলতে হবে।

তারা বলেন, অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে, দেশের চাইতে গারমেন্টস মালিকদের স্বার্থই সরকারের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। মালিকদের সম্ভাব্য ক্ষতি পোষানোর জন্য সরকারের পক্ষ থেকে ৫হাজার কোটি টাকা প্রনোদনা দেয়া হয়েছে, যা সরাসরি শ্রমিকদের পাবার কথা। তারপরও কেন মালিকরা এ ধরনের আত্মঘাতি সিদ্ধান্ত গ্রহন করছে। তারা কি সরকার ও রাষ্ট্রের চাইতেও শক্তিশালী ?

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, গারমেন্টস শ্রমিকদের কি করোনায় আক্রান্ত হবার ঝুঁকি নেই ? তাদের জীবনের কি ন্যূনতম নিরাপত্তা থাকতে নেই? তারা আক্রান্ত হলে কি অন্যেরা, দেশবাসী ভাল থাকবেন ? অবিলম্বে নীতিনির্ধারকদের এই ব্যাপারে দ্রুত কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করা প্রয়োজন।

তারা বলেন, ঝাঁকে ঝাঁকে মানুষ এখন ঢাকা মুখি। যখন করোনাভাইরাসের কারণে প্রতিদিনই আক্রান্তে সংখ্যা বেড়েই চলেছে। যখন সামাজিক দূরত্বের পাশাপাশি শারীরিকভাবে দূরত্ব বজায় রাখার কথা বলা হচ্ছে। তখন কারখানা মালিকদের এই খামখেয়ালিপনা সিদ্ধান্তে কত বড় হুমকির মধ্যে আমরা পড়তে যাচ্ছি তা কি কতৃপক্ষ ভেবে দেখেছেন।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন