পলাশবাড়ীতে বাবাকে পাসুন দিয়ে ক্ষতবিক্ষত করে হত্যা চেষ্টায় ছেলেরা

83
gb
গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ীতে জমি সংক্রান্ত বিষয়ে আক্রোশে ছেলেদের ধারালো অস্ত্রের কোপে ক্ষতবিক্ষত করে বাবাকে হত্যার চেষ্টা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বাবা সামাদ মিয়া কাতরাচ্ছেন। চিকিৎসাধীন বাবা সামাদ কথা না বলতে পারলেও ছেলেদের বিচার প্রার্থনা করেছেন। এঘটনায় থানায় অভিযোগ করার প্রস্তুতি চলমান রয়েছে।
ঘটনাটি আজ ২১ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সকাল ১০ ঘটিকার সময় জমিতে কাজ করাকালে বড় বউয়ের নিজ সন্তানদের হাতে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন বাবা সামাদ মিয়া (৭০)। সামাদ মিয়া শিমুলিয়া গ্রামের মৃত তৈয়ব খোরার ছেলে। তার দুই স্ত্রী প্রথম স্ত্রী ৩ ছেলে ১ মেয়ে,দ্বিতীয় স্ত্রীর ৩ মেয়ে ১ ছেলে। সামাদ মিয়ার প্রথম স্ত্রী মৃত মমতাজের ছেলে তিনজন মোখলেছ মিয়া, মৌবার, মাজাদুল এর হাতে মারাত্বক আহত হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
আহত সামাদ মিয়ার পত্রিক সূত্রে সহ ক্রয় সূত্রে বসতবাড়ীসহ প্রায় ১২ বিঘা জমি রয়েছে। পারিবারিক ভাবে কাউকে লিখে না দিলেও যার যেমত সেইমত চাষা আবাদ করে চলছিলো সামাদ মিয়া ও তার সন্তানেরা।কিন্তু বেশ কিছুদিন হলো এসব জমিজমা নিয়ে প্রথম স্ত্রীর তিন ছেলে গালিগালাজ করাসহ নানা ভাবে বাবা সমাদ মিয়া ও দ্বিতীয় স্ত্রী সন্তানদের হুমকি ধামকি দিয়ে আসছিলো। এর ধাবাহিকতায় আজ সকালে তারা সামাদ মিয়াকে হত্যার উদ্দেশ্যে কৃষি যন্ত্র পাসুন দিয়ে মারধর করে মাথা, ঘাড়,মুখ চোখ ও শরীরের বিভিন্ন অংশে হাড়ভাঙ্গা ছেলা ফুলা রক্তাক্ত জখম করে। চিকিৎসাধীন আহত সামাদ মিয়া ক্ষত স্থানের ব্যাথায় কাতরাচ্ছেন। মুখে আঘাত পাওয়া স্পষ্ট করে কথা বা খাওয়া দাওয়া করতে পাচ্ছেন না।