আমিরাতে আওয়ামী লীগের গণসংবর্ধনা

41
gb

লুৎফুর রহমান.জিবি নিউজ।।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সব সময় দেশের কল্যাণে কাজ করে। দেশকে রাজাকার, সন্ত্রাস, দূর্নীতি মুক্ত করতে একমাত্র আওয়ামী লীগই জিরো টলারেন্স ভূমিকা নেয়। বর্তমানে আওয়ামী লীগের দূর্নাম করার জন্য কিছু নব্য আওয়ামীলী গাররা উঠে পড়ে লেগেছে, ওদের হাত থেকে আওয়ামী লীগকে রক্ষা করার জন্য সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাংলাদেশ থেকে আগত চট্টগ্রাম ১৫ সাতকানিয়া-লোহাগড়া থেকে বার বার নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য জননেতা প্রফেসর ড. আবু রেজা মোহাম্মদ নিজামউদ্দিন নদভীর আমিরাত আগমন উপলক্ষে ইউএই আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে গণ-সংবর্ধনায় এসব বলেন বক্তারা।

সোমবার শারজাহের একটি রেস্তোরাঁয় আয়োজিত উক্ত গণ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আমিরাত আওয়ামীলীগের আহবায়ক প্রকৌশলী মনোয়ার হোসেন।

দুবাই আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মঈন উদ্দিন মইন ও শারজাহ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম রুহেলের যৌথ পরিচালনায় প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের সদস্য মিসেস রিজিয়া রেজা চৌধুরী।

বিশেষ অতিথি ছিলেন বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন আমিরাত কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি লায়ন নজরুল ইসলাম তালুকদার, দুবাই আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী শফিকুল ইসলাম, সাতকানিয়া আওয়ামী পরিষদের প্রধান উপদেষ্টা প্রকৌশলী এনামুল হক চৌধুরী, আজমান আওয়ামী লীগের প্রধান উপদেষ্টা সালাহউদ্দিন মধু , শারজাহ আওয়ামী লীগের প্রধান উপদেষ্টা বচন মিয়া তালুকদার, উপদেষ্টা কাছন আলী, শারজাহ বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি শাহজাহান মিয়াজী, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন আমিরাত শাখার সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, কমলগঞ্জ প্রবাসী সমিতির সভাপতি মুহিদ চৌধুরী।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ আনোয়ারুল হাসান। ৭১টিভির সাংবাদিক লুৎফুর রহমানের নেতৃত্বে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের পর পরই স্বাগত বক্তব্য রাখেন আমিরাত আওয়ামীলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য রানা হামিদ।

বক্তারা আরো বলেন, প্রবাসীরা দেশের রেমিটেন্সে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখেন কিন্তু সেই প্রবাসীরা যখন এয়ারপোর্টে হেনস্থা হন তখন খুবই খারাপ লাগে। বাংলাদেশ দিন দিন উন্নত হচ্ছে কিন্তু এয়ারপোর্টগুলো এখনো পুরোপুরি প্রবাসীবান্ধব হয়ে উঠেনি। বর্তমানে এয়ারপোর্টে ভিজিটে আসা প্রবাসীদের আসতে দেওয়া হচ্ছেনা সেই দিকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে নজর দেওয়ার অনুরোধ রইল।

সবশেষে আগত অতিথিদের ফুল ও সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়।

gb

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More