যুবলীগ নেতা খালেদকে গুলশান থানায় হস্তান্তর, মামলার প্রস্তুতি

বিশেষ প্রতিনিধি জিবি নিউজ ২৪

রাজধানীতে অবৈধ ক্যাসিনো চালানোর অভিযোগে গ্রেফতার যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে  গুলশান থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ২ টা ৩২ মিনিটে র‌্যাবের প্রহরায় একটি সাদা মাইক্রোবাসে করে তাকে থানায় নিয়ে আসা হয়। 

র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সিনিয়র সহকারী পরিচালক এএসপি মিজানুর রহমান ভূঁইয়া বলেন, ‘খালেদ মাহমুদের বিরুদ্ধে তিনটি  মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। গুলশান থানায় অস্ত্র মামলা ও মতিঝিল থানায় মাদক মামলা করা হবে।এছাড়া তার বিরুদ্ধে মানিলন্ডারিং আইনে আরেকটি মামলা দায়ের করা হবে। ’

এর আগে বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার পর গুলশানের নিজ বাসা থেকে র‌্যাব সদস্যরা তাকে আটক করে। খালেদ মাহমুদের বাসায় অভিযানে অংশ নেওয়া একজন কর্মকর্তা জানান, ‘তার বাসা থেকে একটি অবৈধ পিস্তল, ছয় রাউন্ড গুলি, ২০১৭ সালের পর নবায়ন না করা একটি শটগান উদ্ধার করা হয়েছে।      এছাড়া, ৫৮৫ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। ’ 

বাড়ির তত্ত্বাবধায়ক আরিফ হোসেন জানান, ‘বিকাল তিনটার দিকে ডিবির সদস্য পরিচয়ে কয়েকজন বাসায় আসেন। চারটার দিকে বাসায় ঢোকে র‌্যাব। সাড়ে চারটার দিকে বাড়ির লোকজনকে ডেকে বলা হয়, আপনারা আসুন। বাড়ি তল্লাশি করা হবে।লকার থেকে দুটি অস্ত্র  এবং ওয়াল আলমারি থেকে দুই প্যাকেট ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। ’ 

তিনি আরও জানান, ‘ভবনটি ৪ বছর আগে কেনেন খালেদ মাহমুদ। ’ রাত ৯টার দিকে খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলেও তিনি জানান। এরআগে, বিকেল থেকে গুলশান-২ এর বাসাটি ঘিরে রাখে র‌্যাব। লে. কর্নেল মো. সারওয়ার-বিন-কাশেম বলেন, ‘গুলশান-২-এর ৫৯ নম্বর সড়কে ৪ নম্বর প্লটে একজন অভিযুক্তের বাসা ঘিরে রাখা হয়েছে। ’ এদিকে, বাসার দারোয়ান হেমায়েত হোসেন বলেন, ‘বিকাল সাড়ে ৩টায় বাসায় আসেন খালেদ মাহমুদ। এর পরপরই র‌্যাব বাসায় আসে। ’

 

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন