প্রয়োজনে নিজেই থানায় গিয়ে ‘ওসিগিরি’ করবো: নতুন ডিএমপি কমিশনার

34
gb

মো:নাসির, বিশেষ প্রতিনিধি জিবি নিউজ ২৪

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার (ডিএমপি) মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম বলেছেন, থানা জনগণের সেবা পাওয়ার সর্বোচ্চ জায়গা। এ কারণে সেখানের ওসি থেকে সবাইকে আগত মানুষের সঙ্গে ভালো আচরণ করতে হবে। কিন্তু মানুষ যদি থানায় সে রকম আচরণ না পান তাহলে আমিই নয়, ওই এলাকার ডিসি থেকে অন্য কর্মকর্তাদের থানায় বসানো হবে। তারা কার্যক্রম মনিটরিং করবে। কেননা কোনো মানুষ বিপদে পড়লে প্রথমে থানায় যান।’

তিনি আরো বলেন, ‘ইতোমধ্যে থানার ওসিদের ডেকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। আর থানার ওসির বিরুদ্ধে আর্থিক কেলেঙ্কারির অভিযোগ আসলে তাও তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

রাজধানীর ট্রাফিক ব্যবস্থা নিয়ে আরও কাজ করবো উল্লেখ করে সদ্য যোগদান করা কমিশনার আরো বলেন, ‘রাজধানীতে বিভিন্ন জায়গায় উন্নয়নমূলক কাজ চলছে। বাড়ছে পরিবহনও। এ কারণে ট্রাফিক সার্জেন্ট শত চেষ্টা করেও রাস্তার যানজট নিয়ন্ত্রণে আনতে হিমশিম খাচ্ছে। এ কারণে সকাল বেলা বিশেষ করে অফিস সময় সংশ্লিষ্ট জোনের সার্জেন্টই নয়, ডিসি ও তার নিম্ন পদস্থ কর্মকর্তাকেও ২ থেকে ৩ ঘন্টা করে রাস্তায় রাখা হবে। তারা রাজধানীর যানজট নিয়ন্ত্রণে মাঠে থেকে কাজ করবেন।’

জঙ্গিবাদ নিয়ে আপনার নতুন পরিকল্পনা আছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘অবশ্যই অতীতের কমিশনারের মতো আমিও জঙ্গিবাদ নির্মূলে সক্রিয় থাকবো। তারই অংশ হিসেবে জঙ্গিদের চিহ্নিত করা হয়েছে। কারাগারে থাকা জঙ্গিরা যেন বের হয়ে স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে পারে তার কাউন্সিল করা হবে। তবে অনলাইনে জঙ্গিবাদ দমনে একটু বেগ পেতে হচ্ছে। কেননা আমাদের সে ধরনের অবকাঠামো নেই। অবকাঠামোর উন্নয়নে নানা পরিকল্পনা রয়েছে।’

অপর এক প্রশ্নে কমিশনার বলেন, ‘মাদক একটি সামাজিক ব্যাধি। তবে মাদক নির্মূল করতে হলে সবার আগে পরিবারকে এগিয়ে আসতে হবে। তবে মাদক যেন রাজধানীতে না ঢুকতে পারে সেজন্য আমরা নতুন নতুন পরিকল্পনা গ্রহণ করবো। আর মাদকের সঙ্গে কোনো পুলিশ সদস্য জড়িত থাকলে অবশ্যই তার বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More