কাশ্মীর নয়িে উত্তজেনা, ইমরানরে পর মোদরিও ট্রাম্পকে ফোন

122
gb

জিবি নিউজ ডেস্ক।।

কাশ্মীর নয়িে উত্তজেনা, ইমরানরে পর মোদরিও ট্রাম্পকে ফোন –কাশ্মীর বষিয় নয়িে এই প্রথম সরাসরি ফোনালাপ হয়ছেে র্মাকনি প্রসেডিন্টে ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং ভারতরে প্রধানমন্ত্রী মোদরি। কাশ্মীরে মোদি সরকাররে গৃহীত পদক্ষপেরে বষিয়ে কথা হয় মোদ-িট্রাম্পরে।
উপত্যকায় সরকারি পদক্ষপেরে কারণ এবং তাকে কন্দ্রে করে পাকস্তিানরে ভূমকিা নয়িে দু’জনরে মধ্যে কথা হয়ছে।ে এছড়াও ভারত র্মাকনি নানান দ্বপিাক্ষকি বষিয়ও উঠে আসে আলোচনায়। আঞ্চলকি পরস্থিতিি নয়িে আলোচনার সময়, প্রধানমন্ত্রী মোদি বলছেনে, এই অঞ্চলরে কছিু নতোর র্কাযকলাপ ও বক্তব্য ভারত বরিোধী, যা শান্তি বজায় রাখার সহায়ক ছলি না।

ভারত সরকাররে তরফ থকেে জানানো হয়ছে,ে হংিসা ও সীমান্ত সন্ত্রাস বন্ধে ট্রাম্পকে আপোষহীনতার কথা বলছেনে নরন্দ্রে মোদী। গতকাল অবশ্য র্মাকনি প্রসেডিন্টেরে সঙ্গে ফোনালাপ হয়ছেলি পাকস্তিানরে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানরে। ওই ফোনালাপে ট্রাম্প নয়াদল্লিি ও ইসলামাবাদরে আলোচনার উপর গুরুত্ব আরোপ করনে।

কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বাতলিরে পর থকেইে উপত্যাকার মানুষরে মানবাধকিার লঙ্ঘনরে অভযিোগ জানাতে শুরু করে ইসলামাবাদ। কাশ্মীর ইস্যুকে তারা বন্ধু চনিরে সাহায্যে জাতসিংঘওে তুলছেলি। তবে জাতসিংঘরে নরিাপত্তা পরষিদরে বঠৈকে যোগদানকারী বশেরিভাগ দশেই জানয়িছেে কাশ্মীর ভারত ও পাকস্তিানরে দ্বপিাক্ষকি বষিয়।

এর আগে র্মাকনি প্রসেডিন্টে বলছেলিনে, ভারতরে প্রধানমন্ত্রী তাকে কাশ্মীর সমাধানরে মধ্যস্থতাকারী হতে অনুরোধ করছেনে। যার সঙ্গে দ্বমিত পোষন করছেলি ভারত সরকার। পরে ট্রাম্প বলনে, ভারত পাকস্তিান উভয়দশে না চাইলে আমরেকিা মধ্যস্থতাকারীর ভূমকিায় থাকবে না।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন