অন্যায় অনিয়ম ও দূর্নীতির বিরুদ্ধে কাফনের কাপড় পরে প্রতিবাদের আজ ৬ ষ্ট দিন

100

গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি ।। জিবি নিউজ ।।

গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলায় ভিজিএফ, ভিজিডি, যতœ প্রকল্প,ও হাট

বাজার উন্নয়ন,রাজস্ব তহবিলের বরাদ্দ লুটপাটসহ বিভিন্ন অন্যায়

অনিয়ম দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে কাফনের কাপড় পরে

সন্তান সাংবাদিক আশরাফুল ইসলাম কে বিদায় জানিয়েছেন তার মা!

পলাশবাড়ীতে দুর্নীতির প্রতিবাদ জানাতে ছেলে আশরাফুলকে কাফনের

কাপড় পরিয়ে বিদায় দিয়েছেন তার মা আছমা বেগম । এই কাফনের

কাপড় পড়ে প্রতিবাদের ৬ ষ্ট দিন আজ ১৬ আগস্ট শুক্রবার। পলাশবাড়ী

উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির প্রতিবাদ জানাতে

টানা ৭১ দিন কাফনের কাপড় পরে দেশের বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নেবেন

আশরাফুল ইসলাম (২৯)।

গত ১০ আগস্ট শনিবার বিকালে আশরাফুল ইসলামকে কাফনের কাপড়

পরিয়ে বিদায় জানান তার মা আছমা বেগম। আশরাফুল ইসলাম পলাশবাড়ী

উপজেলার উদয়সাগর গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে। তিনি পেশায়

একজন গণমাধ্যমকর্মী।

আশরাফুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, ‘পলাশবাড়ী উপজেলা প্রশাসন

ভিজিএফ, ভিজিডিসহ বিভিন্ন প্রকল্পে অনিয়ম করে আসছে। এসব

অনিয়ম-দুর্নীতির প্রতিবাদ জানানোর জন্য এই উদ্যোগ।’আমি যখন

শান্তি পূর্ণ কর্মসূচী পালনে মাইকে প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছিলাম

ঠিক সেই সময়ে অনিয়মকারী ও দূর্নীতিবাজ কর্মকর্তা ও

জনপ্রতিনিধিদের হুমকির মুখে কাফনের কাপড় পড়ে ৭১ দিনের এই

কর্মসূচী ঘোষণা করেছি। তিনি আরো জানান, পলাশবাড়ী

উপজেলাসহ প্রতি রবিবার সকাল ১১ হতে গাইবান্ধা ডিসি অফিস,

বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়, জাতীয় প্রেসক্লাব ও প্রধানমন্ত্রীর

 

কার্যালয়ের সামনে কাফনের কাপড় পরে ৩ ঘন্টাব্যাপী অবস্থান কর্মসূচী

পালনের মাধ্যমে তার এই প্রতিবাদ কর্মসূচি পালিত হবে।

এ বিষয়ে পলাশবাড়ী রিপোর্টার ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক শহিদুল

ইসলাম সাংবাদিকদের কে বলেন, ‘পলাশবাড়ী উপজেলা প্রশাসনের

অনিয়ম-দুর্নীতির প্রতিবাদে রোববার (১১ আগস্ট) সকালে এক

প্রতিবাদ সভা আহ্বান করা হয়েছে। সেখানে আশরাফুল ইসলামও

কাফনের কাপড় পরে অবস্থান নেন। এ প্রতিবাদ সভায় হামলা করে পন্ড করে

দেয় অনিয়মকারী ও দূর্নীতিবাজ চক্রের সহযোগীরা ’এবং এর আগেই

এই দাবী আদায়ে ৭১ দিন ব্যাপী তিনি এই কর্মসূচী পালন করার

ঘোষণা দেন আশরাফুল ইসলাম।

এদিকে পলাশবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মেজবাউল

হোসেন সাংবাদিকদের কে বলেন, ‘ভিজিএফ, ভিজিডি বা অন্য

কোনো প্রকল্পে কোনো ধরনের অনিয়ম করা হয়নি। স্বচ্ছতার মধ্য দিয়ে

ঐসব প্রকল্পের কাজ করা হচ্ছে।’

আশরাফুল ইসলাম আরো বলেন,অন্যায় অনিয়ম ও দূর্নীতি করেছেন কিনা

তার প্রমাণ তাদের কাছে যে কাগজপত্রাদি রয়েছে ও যারা এ যাবৎকালে

উপরোক্ত সুবিধা গুলো পেয়েছেন তাদের কাছেই পাওয়া যাবে। তিনি

বলেন, স্বাধীনতার পর সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ

মজিবুর রহমানের স্বপ্ন সংগ্রাম ছিলো অন্যায় অনিয়ম ও দূর্নীতির

বিরুদ্ধে সেই স্বপ্ন সংগ্রামের পথে আমার এই আন্দোলন অন্যায়

অনিয়ম ও দূর্নীতি বিরুদ্ধে আন্দোলন চলছে চলবে।