পশুবোঝাই ট্রাক থামাতে পারবে না পুলিশ: আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী

152

মো:নাসির, বিশেষ প্রতিনিধি জিবি নিউজ ২৪ ||

আসন্ন ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে দেশজুড়ে কোরবানির পশুবোঝাই ট্রাক চলাচল করবে। সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়া পশুবাহী কোনো ট্রাক না থামাতে পুলিশ কর্মকর্তাদের কঠোর নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।

বুধবার পুলিশ সদর দপ্তরের সম্মেলন কক্ষে দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত ত্রৈমাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ নির্দেশ দেন। সভায় সব মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার, রেঞ্জ ডিআইজি ও জেলার পুলিশ সুপাররা উপস্থিত ছিলেন।

আইজিপি বলেন, সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়া মহাসড়কে কোরবানির পশুবোঝাই কোনো ট্রাক না থামানো যাবে না। মহাসড়কের ওপর কোনোভাবেই কোরবানির পশুর হাট বসানো যাবে না। ঈদ উপলক্ষে মহাসড়ক, নৌ ও রেলপথে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা স্বাভাবিক রাখতে হবে। এছাড়া কেন্দ্রীয় ঈদগাঁসহ দেশের প্রধান প্রধান ঈদ জামাতস্থলের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সাদা পোশাকে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন থাকবে।

কোরবানির পশুর চামড়া পাচাররোধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেন তিনি।

গুজবের ঘটনায় তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়ে পুলিশ প্রধান বলেন, গুজব ছড়িয়ে দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে পুলিশ কঠোর অবস্থানে রয়েছে। বিশেষ করে ঈদকে সামনে রেখে পোশাক শিল্প নিয়ে যেন কোনো ধরনের গুজব সৃষ্টি না হয়, সেদিকে সর্তক থাকতে হবে।

এ সময় পুলিশের মহাপরিদর্শক গুজবের বিরুদ্ধে দৃঢ় অবস্থানের জন্য পুলিশ কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানান। গুজবের মতো ডেঙ্গু প্রতিরোধেও জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য পুলিশ কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

জঙ্গি তৎপরতার বিষয়ে আইজিপি আরও বলেন, বর্তমানে দেশে জঙ্গি তৎপরতা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। জঙ্গিদের কার্যক্রম নিয়মিত মনিটর করতে হবে। তাদের সম্পর্কে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়াতে হবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম মনিটর করে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এজন্য নিয়মিত ব্লক রেইড, চেকপোস্ট স্থাপনসহ তল্লাশি জোরদার করার নির্দেশ দেন তিনি।

তিনি বলেন, বর্তমানে দেশের কোথাও কোথাও গ্যাং কালচার বা ‘ইয়ুথ গ্রুপ’ গড়ে উঠার প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। এ ধরনের গ্যাংয়ের সদস্যদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এ সময় আইজিপি খুন, ধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতন মামলা নিবিড়ভাবে তদন্তের জন্য মাঠ পর্যায়ের পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন।

পাসপোর্ট ভেরিফিকেশনে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বনের নির্দেশ দিয়ে তিনি বলেন, এ সুযোগ নিয়ে যেন কোনো রোহিঙ্গা বা অপরাধী পাসপোর্ট না পায়।
সভায় আসন্ন ঈদুল আজহা, ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সব অনুষ্ঠানের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এছাড়া ১৭ আগস্ট দেশের ৬৩টি জেলায় সিরিজ বোমা হামলা এবং ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের নিরাপত্তা দেওয়ার বিষয়েও আলোচনা হয়।

সভায় পুলিশ সদর দপ্তর ডিআইজি (ক্রাইম ম্যানেজমেন্ট) ওয়াই এম বেলালুর রহমান গত ৩ মাসের (এপ্রিল-জুন) সার্বিক অপরাধ পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেন।

সভায় অপহরণ, খুন, ডাকাতি, ছিনতাই, এসিড নিক্ষেপ, ধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতন, মাদকদ্রব্য, চোরাচালান দ্রব্য, অস্ত্র ও বিষ্ফোরক উদ্ধার, সড়ক দুর্ঘটনা, গাড়ি চুরি, রাজনৈতিক সহিংসতা, অপমৃত্যু, পুলিশ আক্রান্ত মামলাসহ দেশের সমগ্রিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করা হয়।