সিলেটে স্কলার্স হোমের শিক্ষার্থী লাইফ সাপোর্টে

186

সিলেটে স্কলার্স হোমের ছাত্র ফাবিয়ান চৌধুরী তিনদিন ধরে ঢাকার একটি হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে রয়েছে। এখনও তার জ্ঞান ফেরেনি। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তার বাবা ফাহিম আহমদ চৌধুরী যুগান্তরকে এ তথ্য জানান।

স্কলার্স হোম কর্তৃপক্ষের দাবি মঙ্গলবার ৫ম তলার ছাদ থেকে পড়ে গিয়ে ফাবিয়ান আহত হয়েছে। অথচ তার শরীরে কোনো আঘাত কিংবা ক্ষত নেই। ফলে এ নিয়ে নানা রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনার পর বিষয়টি ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে গেছে।

পরিবার বলছে, ৫ম তলার ছাদ থেকে ১০ বছরের একটি ছেলে পড়ে গিয়ে ফুসফুসে আঘাত পেয়েছে অথচ তার শরীরের কোথাও কোনো ক্ষত বা আঘাতের চিহ্ন নেই। নগরীর বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান স্কলার্স হোম শিবগঞ্জ ক্যাম্পাস থেকে চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র ফাবিয়ানকে মঙ্গলবার মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এরপর থেকে ওই শিক্ষার্থীর শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন অবস্থায় রয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। উন্নত চিকিৎসার জন্য মঙ্গলবার রাতেই তাকে ঢাকায় নিয়ে গেছেন পরিবারের সদস্যরা। ফাবিয়ান স্কলার্স হোমের শিবগঞ্জ শাখার ইংরেজি মিডিয়ামের ৪র্থ শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

এ ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে হাফিজ মজুমদার ট্রাস্ট। স্কলার্স হোম এ ট্রাস্টেরই একটি প্রতিষ্ঠান। কমিটিতে স্কলার্স হোম মেজরটিলা ক্যাম্পাসের অধ্যক্ষ নাজমুল বারী আনসারীকে প্রধান করা হয়েছে। অন্যান্য সদস্যরা হলেন- সাপ্লাই শাখার অধ্যক্ষ আখতারী বেগম ও শিবগঞ্জ শাখার অধ্যক্ষ প্রাণবন্ধু বিশ্বাস। কমিটিকে ৩ দিনের মধ্যে ফাবিয়ানের অসুস্থ হওয়ার কারণ খুঁজে বের করে ট্রাস্টকে জানাতে বলা হয়েছে। ট্রাস্টের ভাইস চেয়ারম্যান ও একাডেমিক কাউন্সিলের প্রধান ড. কবির চৌধুরী যুগান্তরকে এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনা যাই ঘটুক প্রকৃত ঘটনা তদন্তে অবশ্যই বেরিয়ে আসবে।