হলুদ চাষে ঝুঁকছেন পলাশবাড়ীর চাষীরা

148
gb

 ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা //

গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার মাটি রবি ফসলের জন্য উৎকৃষ্ট মাটি। এ উপজেলার মাটি সাধারণত উঁচু বেলে দোআঁশ মাটি। উপজেলার কৃষকরা হলুদ চাষ করে লাভের মুখ দেখছেন। হলুদ চাষে অল্প খরচে বলা যায় বিনা সেচে আবাদ হয়ে থাকে। এক বিঘা জমিতে ১০ হাজার টাকা খরচ করে ৫০ থেকে ৬০ টাকার হলুদ বিক্রয় করতে পারে। এখানকার হলুদের আকর্ষণীয় রং, গুনে মাণে ভালো। স্থানীয় চাহিদা পূরণ করে দেশের বিভিন্ন স্থানে এখানকার হলুদ চলে যায়। পলাশবাড়ী উপজেলার হোসেনপুর ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর গ্রামের হলুদ চাষী শামীম আলী, হষরত আলী, মোঃ আনোয়ার বলেন, আমরা আমাদের যে জমিতে হলুদ চাষ করেছি সে জমিতে ধান চাষ করে হলুদের মতো টাকা আয় করতে পারতাম না। হলুদ চাষ করে আমরা অনেক লাভবান হয়েছি। আশা করছি আগামী বছরে আরো হলুদের চাষ বাড়াবো। একই উপজেলার মহদীপুর ইউনিয়নের হলুদ চাষী পরিতোষ নাথ, সুধীর চন্দ্র রায় হলুদ চাষে তাদের উন্নতির কথা বলেন। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ আজিজুল ইসলাম বলেন, এ বছর পলাশবাড়ী উপজেলায় ২৩০ হেক্টর জমিতে হলুদ ছাষ হয়েছে। কৃষি বিভাগ হলুদ চাষিদের সব রকম কৃষি পরামর্শ দিয়ে আসছে। আবহাওয়া ভালো থাকায় হলুদের ফলন ভালো হয়েছে এবং কৃষক হলুদ চাষে লাভবান হবে।