শীত না আসতেই শ্বেতশুভ্র বরফের চাদরে ঢেকে গেছে কাশ্মীর-হিমাচল

130
gb

জিবি নিউজ24 ডেস্ক //

শীত না আসতেই শ্বেতশুভ্র বরফের চাদরে ঢেকে গেছে ভারতের উত্তরাঞ্চল। বিগত দশ বছরের মধ্যে এবারই নভেম্বরের শুরুতে জম্মু-কাশ্মীর ও হিমাচল প্রদেশের বিভিন্ন এলাকায় দেখা দিয়েছে তুষারপাত। যা ক্রমেই তীব্র হচ্ছে। যা দেখতে প্রতিদিনই ভিড় জমাচ্ছেন পর্যটকরা।

বৃষ্টির মতো পড়ছে বরফ। গাড়ি, মোটরসাইকেল, রাস্তাঘাটে জমেছে বরফের স্তূপ। ভারতের দক্ষিণে যখন হেমন্তের হাওয়া বইছে, ঠিক তখন উত্তরের রাজ্য কাশ্মীরে নভেম্বরের শুরু থেকে পুরো দমে চলছে তুষারপাত। স্থায়ীদের কাছে যা কাশ্মীরের সৌন্দর্যের প্রতীকই বটে।

এক পর্যটক বলেন, ১০ বছর পর নভেম্বরে এমন তুষারপাত দেখা যাচ্ছে। এই বিরল মুহূর্ত দেখে খুবই ভালো লাগছে। যা দেখতে পর্যটকরা আসবেন চাঙ্গা হবে অর্থনীতি।

প্রতি বছর এই তুষারপাত দেখতে ভূস্বর্গ খ্যাত কাশ্মীরে ভিড় জমান পর্যটকরা। বরফের গদিতে পা ডুবিয়ে, ঝুরঝুরে তুষারের বল নিয়ে খেলার মজাই আলাদা।

চলতি সপ্তাহ থেকে সাদা বরফের চাদরে মুখ লুকিয়েছে হিমাচল প্রদেশেও। হিমাচলের প্রাণকেন্দ্র মানালির তুষারপাত নজর কাড়ছে ভ্রমণপিপাসুদের। মাইনাস তাপমাত্রার স্বাদ নিতে তাই ক্রমেই বাড়ছে দেশি-বিদেশি পর্যটক।

আরেক পর্যটক বলেন, সবাই বলে কাশ্মীর হলো স্বর্গ। আমি বলবো, শুধু কাশ্মীর নয়, মানালিতেও স্বর্গের সৌন্দর্য রয়েছে। একবার ঘুরে গেছে আপনিও তাই বলবেন।

কাশ্মীর, হিমাচল প্রদেশের এই তুষারপাত তাপমাত্রা কমাতে শুরু করেছে প্রতিবেশী পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ ও রাজধানী নয়া দিল্লিতে। আবহাওয়াবিদরা বলছেন, উত্তর ও মধ্য ভারতের বাড়ন্ত শীত প্রবাহ এবার দক্ষিণ ও পূর্বাঞ্চলেও আগেভাগেই বয়ে আনবে শীতলতা।

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More