Bangla Newspaper

নানা পাটেকারের শেষরক্ষা কি আর হলো না?

72

জিবি নিউজ24 ডেস্ক //

তনুশ্রী দত্তের আনা যৌন হেনস্থার অভিযোগ বরাবরই অস্বীকার করে আসছিলেন নানা পাটেকার। তারই ধারবাহিকতায় গতকাল সোমবার মুম্বাইয়ে নিজের বাসার সামনে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলকে বলেছিলেন, ‘নতুন করে কিছু বলার নেই। ১০ বছর আগেই বলেছি। তখন যা বলেছি, এখনো তা-ই বলব। সেটা এখন পাল্টে যাবে না। মিথ্যা বরাবর মিথ্যাই থাকবে। মিথ্যাটা কখনো সত্যি হয়ে যাবে না।’

তবে আজ মঙ্গলবার জানা গেছে, বলিউডের এই শক্তিমান অভিনেতার বিরুদ্ধে তনুশ্রী দত্তের অভিযোগের ব্যাপারে নড়চড়ে বসেছে সিনে অ্যান্ড টিভি আর্টিস্টস অ্যাসোসিয়েশন (সিনটা)। দ্রুত কোনো পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে ভারতের টিভি ও চলচ্চিত্রের শিল্পীদের এই সংগঠন। কিন্তু তার আগে চাই অভিযোগ। সংগঠনটির মতে, তনুশ্রী দত্ত নতুন কোনো অভিযোগপত্র দেননি। যদি দেন, তাহলে অভিযোগটি মূল্যায়ন করা হবে।

সিনটার যুগ্ম সম্পাদক অমিত বহেল সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত তনুশ্রী দত্তের কাছ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো অভিযোগপত্র তাঁরা পাননি। তবে তিনি বলেছেন, ‘তনুশ্রী দত্ত যদি চান আমরা বিষয়টি তদন্ত করি, তাহলে তাঁকে সহযোগিতা করব। এরই মধ্যে সংগঠনের পক্ষ থেকে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে।’

নানা পাটেকারকে সিনটার মুখোমুখি করার জন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। অমিত বহেল বলেছেন, ‘আমরা এ ব্যাপারে নানা পাটেকারের কথাও শুনতে চাই।’

এদিকে ৩ অক্টোবর সিনটার কার্যনির্বাহী পরিষদের সভা হয়েছে। সেখানে নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে তনুশ্রী দত্তের অভিযোগ নিয়ে আলোচনা হয়। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তনুশ্রী দত্তকে একটি চিঠি দেওয়া হয়। সেই চিঠিতে তাঁকে আশ্বাস দেওয়া হয়, ‘সিনটার সদস্যদের মর্যাদা ও আত্মসম্মান রক্ষার ক্ষেত্রে সদস্যদের কারও কোনো দ্বিমত থাকতে পারে না।’

সেই চিঠিতে তাঁকে আরও জানানো হয়, ‘যদি আপনি রাজি থাকেন, তাহলে নালিশের ভিত্তিতে আমরা আবার ঘটনার পুনর্মূল্যায়ন করতে চাই। অভিযোগটির ব্যাপারে বিচারবিভাগীয় তদন্ত করতে চাই। আমরা আপনাকে আশ্বস্ত করছি, সংস্থা সর্বসম্মতভাবে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে, অভিযোগটি সম্পূর্ণ নিরপেক্ষ এবং পক্ষপাতহীনভাবে বিচার করা হবে।’

এই চিঠিতে সিনটার পক্ষ থেকে তনুশ্রী দত্তকে কয়েকটি প্রস্তাব দেওয়া হয়। এর মধ্যে রয়েছে, নানা ও তনুশ্রীর সঙ্গে যুগ্ম বৈঠক। এ ছাড়া ‘হর্ন ওকে প্লিজ’ ছবির পরিচালক রাকেশ সারাঙ্গ, কোরিওগ্রাফার গণেশ আচার্য এবং প্রযোজক সামি সিদ্দিকির সঙ্গেও আলোচনা হতে পারে।

‘হর্ন ওকে প্লিজ’ ছবির একটি আইটেম গানের শুটিংয়ের দৃশ্য

এর আগে নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন ২০০৪ সালের ‘মিস ইন্ডিয়া’ ও একসময়ের বলিউড তারকা তনুশ্রী দত্ত। মুম্বাইয়ের ওশিওয়ারা পুলিশ স্টেশনে তিনি এই অভিযোগ করেছেন। তাঁর অভিযোগ মামলা হিসেবে নথিবদ্ধ করা হয়েছে। সেই অভিযোগপত্রে তিনি উল্লেখ করেছেন, ২০০৮ সালে ‘হর্ন ওকে প্লিজ’ ছবির একটি আইটেম গানের শুটিংয়ের সময় বাজেভাবে তাঁর শরীরে হাত দেন নানা পাটেকার। ঘটনার প্রতিবাদ করায় ছবির প্রযোজক ও পরিচালক কেউই তখন পাত্তা দেননি।

এরপর গতকাল সোমবার ওশিওয়ারা পুলিশ স্টেশনে ‘হর্ন ওকে প্লিজ’ ছবির প্রযোজক সামি সিদ্দিকি লিখিতভাবে জানিয়েছেন, ওই সময় তাঁর ছবির সেটে কোনো যৌন হয়রানির ঘটনা ঘটেনি। তিনি দাবি করেন, অনেক আগেই গরেগাঁও পুলিশ স্টেশন এই ঘটনার তদন্ত করেছে। তখন অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়নি। সেটা ছিল প্রচারণার একটি কৌশল।

তনুশ্রী দত্ত আরও জানিয়েছেন, নানা পাটেকারের ঘটনার ব্যাপারে ওই সময়ই তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে সিনে অ্যান্ড টিভি আর্টিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের (সিনটা) কাছে অভিযোগ জানিয়েছিলেন। কিন্তু তাতে কোনো লাভ হয়নি। বরং এরপর তাঁর ওপর হামলা চালিয়েছিল একদল লোক। নিরাপত্তা ও নিজের জীবন রক্ষার জন্য তিনি যুক্তরাষ্ট্রে চলে যান।

Comments
Loading...