কঙ্গনা জানালেন কুইনের সেটে পরিচালক তাঁকে যৌন হেনস্তা করেছিল !

355
gb

জিবি নিউজ24 ডেস্ক //

বিকাশ বহলের ‘কুইন’ ছবিতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন কঙ্গনা রানাউত। কঙ্গনা জানালেন, ২০১৪ সালে কুইনের সেটে পরিচালক তাঁকে যৌন হেনস্তা করেছিলেন। 

সম্প্রতি শীর্ষস্থানীয় ভারতীয় গণমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে-র একটা সাক্ষাৎকারে কঙ্গনা (অন্য একজন নারী যিনি হাফিংটন পোস্ট ইন্ডিয়ার সাক্ষাৎকারে পরিচালকের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ করেছেন তাঁর সমর্থনে) জানিয়েছেন, আমি তাঁকে সম্পূর্ণ বিশ্বাস করি। ২০১৪ সালে ‘কুইন’-এর শুটিং চলাকালীন তিনি বিবাহিত হওয়া সত্ত্বেও প্রতিদিন একজন নতুন সঙ্গিনীর সঙ্গে সঙ্গমে লিপ্ত হতেন। আমি মানুষকে এবং তাঁদের বিয়েকে জাজ করি না কিন্তু অ্যাডিকশন যখন অসুস্থতা হয়ে যায় তখন মুখ খোলা উচিত। সে প্রতিরাতে পার্টি করত আর আমি রোজ তাড়াতাড়ি ঘুমিয়ে পড়তাম এবং তথাকথিত কুল না হওয়ার জন্য আমাকে লজ্জায় ফেলা হতো।

সাক্ষাৎকার চলাকালীন ৩১ বছর বয়সী অভিনেত্রী মনে করে বলেন, প্রথমবার যখন পরিচালকের সঙ্গে দেখা হয়েছিল তখন তিনি তাঁকে অত্যন্ত জোরে চেপে ধরেছিলেন এবং তাঁর চুলের ঘ্রাণ নিয়েছিলেন।

কঙ্গনা বলেন, প্রতিবার আমাদের কোনো সামাজিক অনুষ্ঠানে দেখা হলে আমরা পরস্পরকে জড়িয়ে ধরে অভ্যর্থনা জানাতাম। আর প্রতিবারই সে আমার ঘাড়ে মুখ গুজে দিত, আমাকে খুব জোরে চেপে ধরে আমার চুলের ঘ্রাণ নিত। আমার নিজেকে ওঁর কবল থেকে বের করে আনতে খুব কসরত করতে হতো। ও বলত, ‘আমার তোমার গন্ধটা খুব ভালো লাগে’। আমি বলছি ওঁর মধ্যে কিছু গণ্ডগোল নিশ্চয়ই আছে- ইন্ডিয়া টুডে-কে জানান কঙ্গনা।

কঙ্গনা এ কথাও জানান, মেয়েটির পাশে দাঁড়ানোর পর তিনি অনেকগুলো কাজের সুযোগও হারিয়েছেন। তিনি মুখ খোলার পর বিশাল বহল নাকি তাঁর সঙ্গে কথা বলা বন্ধ করে দিয়েছেন এবং বিষয়টা পুরোপুরি কার্পেটের নিচে চাপা পড়ে গিয়েছে। কঙ্গনা বলেন, আমি বলছি তো ওঁর মধ্যে নিশ্চয়ই কিছু গলদ আছে। আমি মেয়েটিকে বিশ্বাস করি। কিন্তু দুঃখের বিষয় হলো ঘটনাটা চাপা পড়ে গিয়েছে, অনেকেই তাঁকে আক্রমণ করছে কিন্তু এই বিষয়ে মেয়েটি অনেক আগেই সাহায্য চেয়েছিল। ওই সময় বিষয়টা পুরোপুরি চাপা পড়ে গেলেও আমি মেয়েটির সঙ্গে পুরোপুরি সহমত। আমি ভেবেছিলাম #MeToo আন্দোলন কাজ করবে কিন্তু আমি ভুল ভেবেছিলাম।

অনুরাগ কাশ্যপ যে দিন জানিয়েছেন ফ্যান্টম ফিল্মস আর হবে না সেই দিনেই কঙ্গনা এই কথাগুলো বলেছেন। কঙ্গনা জানান, ফ্যান্টমের খবরটা পাওয়ার পর অনেকেই তাঁকে আক্রমণের সাহস পাচ্ছে। এমন একটা সমাজের প্রতি সত্যিই ঘৃণা হয়। নিজেদের আয়নায় দেখুন, কাপুরুষের দল, অক্ষম মানুষদের আক্রমণ করে কিছুই কাজ হবে না। আমরা করি বা করি না। সুযোগসন্ধানী হওয়া বন্ধ করুন। আমরা যদি এই জঘন্য সমাজের অংশ হই তবে সেটা মেনেই নিই। অন্তত সৎ থাকুন। আপনাদের এই রাগ ট্যাবলয়েডের গসিপ ছাড়া আর কোনো কাজেই আসবে না।

হাফিংটন পোস্ট রিপোর্ট অনুসারে ফ্যান্টম ফিল্মস (বিকাশ বহল যার সহ-কর্ণধার) বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণ হিসাবে বিকাশ বহলের বিরুদ্ধে ওঠা বিভিন্ন অভিযোগকেই দায়ী করা হয়েছে।

কঙ্গনা রানাউতের আসন্ন ছবি ‘মণিকর্ণিকা : দ্য কুইন অব ঝাঁসি’ বিকাশ বহলের ফ্যান্টম ফিল্মসের ‘সুপার থার্টি’র সঙ্গে একই দিনে মুক্তি পাবে, যা ফ্যান্টম ফিল্মসের শেষ প্রজেক্ট।

আগামী ২৫ জানুয়ারি ছবি দুটো মুক্তি পাবে।