হবিগঞ্জ পৌর বিএনপির ৭নং ওয়ার্ডের সদস্যসংগ্রহ ও নবায়ন কর্মসুচির উদ্ভোধন

325

হবিগঞ্জ পৌর বিএনপির ৭ নং ওয়ার্ডের উদ্দ্যোগে শনিবার বিকেলে রাজনগর কেন্দ্রীয় প্রাইমারী স্কুল প্রাঙ্গনে নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কর্মসুচির উদ্ভোধন করা হয়েছে। বিএনপি নেতা হাফিজ উল্লার সভাপতিত্বে ও যুবদল নেতা শাহ সালাউদ্দীন টিটুর স ালনায় কর্মসূচির উদ্ভোধন করেন হবিগঞ্জ-লাখাই নির্বাচনী এলাকার সম্ভাব্য দলীয় প্রার্থী, জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা: আহমুদুর রহমান আব্দাল।


বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন হবিগঞ্জ সদর বিএনপির সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক এনামুল হক, জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি আমিনুর রশীদ এমরান, জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রদল সভাপতি এড: কামাল উদ্দিন সেলিম, জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও যুবদলের সাবেক সভাপতি এম.জি মোহিত, পৌর বিএনপির সভাপতি আব্দুল হান্নান ফরিদ।
এ ছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপি নেতা ফারুক আহমেদ, আজম উদ্দিন, দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী দিলু, পৌর বিএনপির সাধারন সম্পাদক এস.এম আব্দুল আওয়াল, সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ারুল ইসলাম আনু, কামাল সিকদার, মামুনুর রশীদ খান, আব্দুর রাজ্জাক চৌধুরী বকুল, সৈয়দ আজহারুল হক বাকু, কাজী হুমাউন আহমেদ রাজু, ফকরুল ইসলাম বাবুল, গাজী আফজাল, আব্দুল আহাদ, হাবিবুর রহমান, কাজী সামছুল হক শিমুল, আব্দুল আহাদ আনসারী, হাসবী সাঈদ চৌধুরী, ফারুক আহমেদ, আলমপনা চৌধুরী মাসুদ, মাকসুদুর রহমান উজ্জল, হারুনুর রশিদ, আব্দুল আহাদ মনা, সাইফুর রহমান রিপন, কুতুব উদ্দিন শামিম, শাহ জাহাঙ্গীর আলম সুমন, আবিদুর রহমান চৌধুরী বুলবুল, আব্দুল বারিক লিটন, অলিউর রহমান বাবলু, আব্দুস সালাম শামিম, ছায়েদ আহমেদ রুপম, শাহ আলম, এনামুল হক মি: মিষ্টার এনাম, পাপন দত্ত চৌধুরী, কামরুল ইসলাম, এম.এ রুমেল, সাইফুল ইসলাম রকি, রিফাদ মিল­াদ চৌধুরী, আবুল বাসার জুমন, এমদাদুল হক হিরু, আলী রাজ উজ্জল, হাফিজুর রহমান বাচ্চু, আল আমিন, শোয়েবুর রহমান, কাওসার আনসারী, আবুল বাশার, আরিফুল ইসলাম ও মুহিদুল ইসলাম প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, বিএনপির চেয়ারপার্সন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান জনাব তারেক রহমানের নির্দেশে সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কর্মসুচিকে যে কোন মুল্যে বাস্তবায়ন করতে হবে। পুলিশ বিএনপির এই যুগান্তকারী কর্মসুচি বাস্তবায়নে বাঁধা দিচ্ছে এবং দিবে। কিন্তু পুলিশের ভয়ে ঘরে বসে এই কর্মসুচি বাস্তবায়ন করা কঠিন হবে। তাই সকল ভয়-ভীতিকে উপেক্ষা করে কর্মীদের চাঙ্গা মনোবল নিয়ে সামনে এগিয়ে যাওয়াই এখন সময়ের দাবি।