একটি সুখী সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়তে আমাদের সকলকে কাজ করতে হবে -বিয়ানীবাজারে ড. একেএম আব্দুল মোমেন

1,856
gb

 মুকিত মুহাম্মদ, বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি ||

জাতি সংঘে বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত ড. একেএম আব্দুল মোমেন বলেছেন, সকল রাজনৈতিক মতবেদ ভুলে বাংলাদেশকে বিশ্বের দরবারে উচ্চ আসনে নিয়ে যেতে হবে। আমরা বিজয়ী জাতি। একটি সুখী, সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়তে আমাদের সকলকে কাজ করতে হবে। সিলেটে রাজনৈতিক পরিবেশের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, এ অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির স্থানীয় দুই দায়িত্বশীল উপস্থিত রয়েছেন। কোমলমতি শিক্ষার্থীর কাছে এরকম দৃষ্টান্ত আমাদের স্থাপন করতে হবে। কারণ তারা আগামী বাংলাদেশের নির্মাতা, সোনালি বাংলাদেশ গঠনের কারিগর। শেখ হাসিনার বলিষ্ট নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশে খাদ্য ঘাটতি ছিল, শেখ হাসিনা সার-বীজে ভর্তুকি দিয়ে দেশকে খাদ্যে স্বয়ং সম্পূর্ণ করেছেন। বিদ্যুৎ উৎপাদন দুই হাজার মেগাওয়াট থেকে বাড়িয়ে শেথ হাসিনার সরকার বর্তমানে বিদ্যুৎ উৎপাদনের সক্ষমতা অর্জন করেছে সাড়ে ১৫ হাজার মেগাওয়াট, শিক্ষায় বিপ্লব রচিত হয়েছে। অর্থনীতিতে আগের সেই মন্দাভাব নেই। তিনি বলেন, শেখ হাসিনার হাতে দেশের নেতৃত্ব থাকলে জাতির জনকের সোনার বাংলার স্বপ্ন অচিরেই বাস্তবে পরিণত হবে। শনিবার সকালে বিয়ানীবাজার পৌরসভার খাসাড়ীপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে হাজী তাহির আলী ফাউন্ডেশন ইউএসএ’র ব্যবস্থাপনায় কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। যুুক্তরাষ্ট্রের মূল ধারা রাজনীতিক ও সিটি অব নিউইর্য়কের বোর্ড মেম্বার ফখরুল ইসলাম দেলোয়ারের সভাপতিত্বে এবং শিক্ষানুরাগী জিবান আহমদের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বিয়ানীবাজার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউর রহমান খান, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল হাসিব মনিয়া, উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল খালিক লালু, কাউন্সিলর মিছবাহ উদ্দিন, যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবসায়ী নুরুল ইসলাম রুনেল, অর্থমন্ত্রীর এপিএস জাবেদ সিরাজী, আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক রিজু মোহাম্মদ প্রমুখ। হাজী তাহির আলী ফাউন্ডেশন’র পরিচালক ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার বলেন, শিক্ষার অগ্রযাত্রা এগিয়ে নিতে আমরা নিরলসভাবে কাজ করছি। বিশেষ করে আমার পিতা হাজী তাহির আলী এ অঞ্চলকে শিক্ষার আলোর আলোকিত করতে বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তার অবর্তমানে আমরা সন্তানরা শিক্ষার প্রসারে দীর্ঘদিন থেকে কাজ করছি। হাজী তাহির আলী ফাউন্ডেশন সকল শ্রেণি পেশার মানুষের পাশে থেকে আমাদের এলাকাকে আলোকিত জনপদ হিসাবে গড়ে তুলতে চাই। অনুষ্ঠানের শুরুতে ভাষা শহীদদের সম্মানে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সঙ্গীত শেষে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিয়ানীবাজার জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি আহমেদ ফয়সাল, বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি আবুল কাশেম প্রমুখ। আয়োজকদের পক্ষ থেকে ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার প্রধান অতিথি ড. একেএম আব্দুল মোমেনের হাতে স্মারক সম্মাননা তুলে দেন। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অনুষ্ঠানে সভাপতি ফখরুল ইসলাম দেলোয়ারকে স্মারক সম্মাননা প্রদান করেন। আয়োজক সংগঠনের পক্ষ থেকে খাসাড়ীপাড়া গ্রামের দুইজন বীর মুক্তিযোদ্ধাকে সম্মানা প্রদান করা হয়। এবং অনুষ্ঠানের সকল বিশেষ অতিথির হাতে স্মারক সম্মাননা তুলে দেয়া হয়।