করোনা মোকাবিলায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছে পুলিশ বাহিনী

95
gb

জিবি নিউজ ডেস্ক ।।

করোনা মোকাবিলায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছে পুলিশ বাহিনী। মানুষের পাশে দাঁড়াতে গিয়ে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তিন হাজার ৭৩২ পুলিশ সদস্য। মারা গেছেন ১৪ জন। সাহসী অবদানের জন্য এবার নানা বিতর্ককে পেছনে ফেলে বিপুল প্রশংসা পেয়েছে পুলিশ বাহিনী।

৮ মার্চ দেশে প্রথম কভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়। প্রথম মৃত্যু হয় ১৮ মার্চ। এরপর হু হু করে বাড়তে থাকে সংক্রমণ ও মৃত্যু। পরিস্থিতি বিবেচনায় সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে সরকার। বন্ধ হয়ে যায় স্কুল-কলেজ, অফিস-আদালত।

সবাই যখন নিরাপদে ঘরে, তখন মাঠে তৎপর পুলিশ। বাড়ি ও এলাকার লকডাউন বজায় রাখা, করোনা সতর্কতায় পাড়া-মহল্লার দোকান বন্ধ রাখা, বাজারে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার দায়িত্বও পুলিশ বাহিনীর। করোনা পরীক্ষায় শৃঙ্খলা বজায় রাখা এবং ত্রাণ বিতরণেও ভূমিকা রয়েছে। করোনায় আক্রান্ত মৃতের দাফন বা সৎকারেও এগিয়ে এসেছে পুলিশ। মৌলভীবাজার পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ বলেন মৌলভীবাজার জেলার সব থানায় মানবতার আধার কার্যক্রম চালু হয়েছে। সমাজের যে কোনও আগ্রহী বিত্তবান ব্যক্তি এখানে খাদ্য সামগ্রী পাঠাতে পারবেন। সম্প্রসারিত বিট পুলিশিং কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আমরা এটি চাল করেছি। এই কার্যক্রমের মাধ্যমে আপনাদের দেওয়া ত্রাণ ও সাহায্য গরিব ও অসহায়দের কাছে পৌঁছে দেবো। মোঃ আনোয়ারুল হক ত্রডিশনাল ত্রসপি(পদায়ন ত্রসপি মৌলভীবাজার বলেন পুলিশ ভালো কাজ করলে এর সুফল পুলিশ ভোগ করেনা।বরং সাধারণ জনগণ ও জনপ্রতিনিধিরা ভোগ করেন। কাজেই সমালোচনা না করে পারস্পরিক সমন্বয় এবং সহায়তার মাধ্যমে কাজ করাই সবার জন্য মংগলজনক। শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার
এএসপি আশরাফুজ্জামান আশিক বলেন, আমরা অঙ্গিকার করেছি মানুষের সেবা করার,সেটা হউক রাত বা দিন।যখনই সমস্যা তখনই সমাধানের চেষ্টা আমাদের কর্তব্য। আজকের কাজ কালকে করা এমনটি আমি বিশ্বাস করি না। শ্রীমঙ্গলে আবারও ভাড়া না দেওয়ার অজুহাতে ঘর থেকে বেড় করে দেওয়ার অভিযোগ,কলোনি মালিকের অস্বীকার। শেষ পর্যন্ত সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আশরাফুজ্জামান আশিকের দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণে বাসায় ফিরলেন ঐ ঘর হারা নারী।

স্বাভাবিক কার্যক্রমের পাশাপাশি এই সময়ে আরো অনেক বাড়তি দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। ঝুঁকি নিয়ে সব কাজে অংশ নেয়ায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যাও বেশি পুলিশ বাহিনীতে।

করোনা সংকট কাটতে এখনো অনেক সময় বাকী। এই সময়ে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছে পুলিশ বাহিনী। তাদের এ সাহসিক ভূমিকায় কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে সাধারণ মানুষ।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন