নগদ সহায়তায় দুর্নীতি রোধে সেনাবাহিনীকে দায়িত্ব দিন : ন্যাপ

55
gb
5

করোনা পরিস্থিতিতে হতদরিদ্র ৫০ লাখ পরিবারের জন্য সরকারের ২,৫০০ টাকা করে নগদ সহায়তা কার্যক্রমে তালিকা তৈরি কেলেঙ্কারীর তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও ক্ষোভ জানিয়ে ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ।

একই সাথে সুষ্ঠভাবে নগদ সহায়তা প্রদানের দায়িত্ব সেনাবাহিনীসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মাধ্যমে প্রান্তিক ও নিম্নবিত্ত মানুষের কাছে পৌঁছানোর দাবি জানান।

রবিবার (১৭ মে) গনমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে পার্টির চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া এ দাবী জানান।

তারা বলেন, গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ অনুযায়ী একই মোবাইল নম্বর ২০০ জন নামের বিপরীতে, ৪ মোবাইল নাম্বার ৩০৫ জনের নামের বিপরীতে ব্যবহৃত হওয়ার ঘটনা কখনই অনিচ্ছাকৃত ভুল বা বিছিন্ন ঘটনা হতে পারে না। সহায়দা ভোগিদের তালিকায় ক্ষেত্রবিশেষে বিত্তশালী ও জনপ্রতিনিধিদের সচ্ছল আত্মীয়-স্বজনের নাম থাকা, সংশ্লিষ্টদের নিন্ম, কুৎসিত ও হীন ও মানসিকতার নগ্ন বহি:প্রকাশ।

নেতৃদ্বয় বলেন, সরকারের নগদ সহায়তা যাতে সঠিকভাবে প্রকৃত হতদরিদ্র, সুবিধাবঞ্চিত ও দুর্যোগে বিপন্ন, অসচ্ছলদের নিকট পৌঁছায়, তা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে যারা এই অর্থ পাচ্ছেন বা পাবেন তাদের পূর্ণ তালিকা প্রকাশ করা উচিত। জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে প্রধানমন্ত্রীর এ উদ্যোগ অবশ্যই সাধুবাদ পাওয়ার যোগ্য। কিন্তু, তালিকা প্রণয়নে স্থানীয় পর্যায়ে অনিয়ম ও বিতরণে অদক্ষতা এবং সমন্বয়হীনতা পুরো উদ্যোগকে প্রশ্নœবিদ্ধ করে তুলতে যাচ্ছে, যা মোটেই শুভ নয়, কাম্য নয়।

তারা বলেন, জাতির এই ঘোর ক্রান্তি লগ্নে সরকারের ত্রান ও নগদ সহায়তা যারা আত্মসাৎ করার মত ধৃষ্টতা প্রদর্শন করছে তাদের নামের তালিকাও ছবি সহ জনগনের সামনে প্রকাশ করা উচিত। যাতে করে ভবিষ্যতে কেউ এধরনের অপরাধের সাথে জড়িত হবার সাহস না দেখান। প্রযুক্তিগত কারণে হয়তো এক নম্বরে একবারের বেশি টাকা যাবেনা, কিন্তু এই যে কাজটা করার সাহস দেখানো, সেটাকে ছোট করে দেখার অবকাশ নাই। যেসব ধনাঢ্য ও স্বচ্ছল ব্যাক্তি এই সহায়তা পেতে তালিকায় নাম ঢুকিয়েছে বলে অভিযোগ এসেছে তাদের সংখ্যা হয়ত বেশি নয়। এদের ছবি সহ পরিচয় প্রকাশ করে দেয়াই হবে বড় শাস্তি হতে পারে।

 

করোনার এই দু:সময়ে যে ত্রাণ কার্যক্রম চলছে তাতে বিভিন্ন সময়ে ত্রাণ সামগ্রী চুরি ও আত্মসাৎসহ বিভিন্ন অনিয়ম ও সংঘটিত দুর্নীতির ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়ে ন্যাপ নেতৃদ্বয় বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দুর্নীতিবিরোধী অবস্থানসহ এই বিষয়ে তার সুস্পষ্ট নির্দেশনা থাকা সতত্ত্বেও প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রেই কার্যকর কোনো দৃষ্টান্ত খুঁজে পাওয়া কঠিন। এ অনিয়ম ও দুর্নীতি প্রতিরোধে মোবাইল নম্বরের সঙ্গে জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর মিলিয়ে নগদ অর্থ পরিশোধ করা হবে, এমন বক্তব্য যথেষ্ট নয়, অনিয়মের সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করাই এখন সময়ের দাবী।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন