অবশেষে সত্যের ও জনগণের রায়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হলেন শেখ মোহাম্মাদ আলমগীর

134
gb

সৈয়দ নাজমুল হাসান, ঢাকা ||

বহুল আলোচিত ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের নির্বাচনের স্থগিতকৃত ভোট গণনা পুনঃযাচাই করে ফলাফল আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন । এতে কাউন্সিলর পদে ঘুড়ি নয়, ঝুড়ি প্রতীকের প্রার্থী শেখ মোহাম্মাদ আলমগীর জয়লাভ করেন।

গতকাল রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন ভবনের মিডিয়া সেন্টারে সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আবদুল বাতেন স্থগিতকৃত এই ওয়ার্ডের ফলাফল আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করেন।

মো. আবদুল বাতেন জানান, গত ১ ফেব্রুয়ারি ভোটগ্রহণের পর ফল প্রকাশের সময় প্রিজাইডিং কর্মকর্তার ‘ভুলে’ টিফিন ক্যারিয়ার প্রতীকের প্রার্থী জুবায়েদ আদেলকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছিল। তিনি  আরো জানান, আরমানিটোলা উচ্চ বিদ্যালয়ের পুরুষ ভোটকেন্দ্রের (কেন্দ্র-৫২০) ফল উল্টে গিয়েছিল। ঝুড়ি প্রতীকে ভোট পড়েছিল ৪৩৯টি, আর ঘুড়ি প্রতীকে ভোট পড়েছিল ২০২টি। এই দুই প্রতীকের ভোট উল্টে যায়। ফলে বেশি ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন জুবায়েদ আদেল। পরে ঝুড়ি প্রতীকের প্রার্থী শেখ মোহাম্মাদ আলমগীর অভিযোগ দেয়ার পর এটি যাচাই করে দেখা গেছে প্রার্থী ও প্রিজাইডিং অফিসারের ফলাফল ভিন্ন। পরে আমরা বাধ্য হয়ে ফল স্থগিত করেছি, বিধি ও আইন দেখেছি। প্রিজাইডিং অফিসার বলেছেন, তিনি লিখতে ভুল করেছেন, তিনি লিখিতও দিয়েছেন সেটি। আবদুল বাতেন আরো বলেন, ইভিএমের রেজাল্টই সত্য, আর প্রিজাইডিং অফিসার যেহেতু স্বীকার করেছে ভুল হয়েছে, তাই আমরা ইভিএমের ফলাফলই গ্রহণ করেছি। যেহেতু শেখ মোহাম্মদ আলমগীর ঝুড়ি প্রতীকে ৯টি কেন্দ্রে সর্বোচ্চ ২৪৭২ ভোট পেয়েছেন, সেজন্য আমি সর্বোচ্চ ভোটপ্রাপ্ত হিসেবে ৩১ নাম্বর ওয়ার্ডে শেখ আলমগীরকে বিজয়ী ঘোষণা করলাম।

 

এদিকে নতুন করে ফল ঘোষণায় সন্তোষ প্রকাশ করে আওয়ামী লীগ সমর্থিত বিজয়ী কাউন্সিলর শেখ মোহাম্মাদ আলমগীর বলেন, আল্লাহু আকবার। সত্যের জয় হয়েছে। সত্য চিরসত্য, সত্যের জয় অনিবার্য। আল্লাহ মহান, তিনিই  উত্তম বিচারক।আমি আল্লাহর উপর ভরসা করেছি। কার্যনির্বাহীরূপে আল্লাহই যথেষ্ট। মহান আল্লাহর দরবারে জানাই লাখো কোটি  শুকরিয়া । তিনি আরো বলেন, সত্যের ও জনগণের জয়ের চেয়ে বড় জয় আর নেই। ৩১ নম্বর ওয়ার্ডবাসী আমাকে ভালবেসে ভোট দিয়েছেন সেজন্য  আমি তাদের কাছে চির ঋণী।

অপরদিকে টিফিন ক্যারিয়ার প্রতীকের প্রার্থী জুবায়েদ আদেল সাংবাদিকদের বলেন, এই ফলাফল আমি মানি না। কারণ আমাকে আগে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছিল। আমাকে এ সংক্রান্ত কাগজও দেওয়া হয়েছে। এখন আবার নতুনভাবে যে ফল ঘোষণা হল, সেটা আমি মানি না। এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আমি আদালতে যাব।

 

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন