কর্মের মধ্যেই বেঁচে থাকবেন ভাষা সৈনিক রওশন আরা বাচ্চু : বাংলা একাডেমী ডিজি

42
gb

 

যতদিন বাংলাদেশ থাকবে, বাংলাভাষা থাকবে ততদিন বেচেঁ থাকবেন ভাষা সৈনিক রওশন আরা বাচ্চু বলে মন্তব্য করেছেন বাংলা একাডেমীর মহাপরিচালক কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী।

তিনি বলেন, মহান ভাষা আন্দোলনে তার অবদান সমগ্র জাতি শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে। বাংলা একাডেমী তার রচিত বই ও জীবনী গ্রন্থ প্রকাশে সকল ব্যবস্থা দ্রুততম সময়ে গ্রহন করবে।

শুক্রবার (৬ ডিসেম্বর) ধানমন্ডিস্থ প্যারাগন টা্ওয়ারে ভাষা সৈনিক রওশন আরা বাচ্চু স্মরণে ভাষা আন্দোলন স্মৃতি রক্ষা পরিষদ ও হৃদয় ৮ ফাল্গুন আয়োজিত স্মরণসভা ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

মরহুমার কণ্যা তাহমিনা খাতুনের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় বক্তব্য রাখেন রাষ্ট্রভাষা মতিনের স্ত্রী বেগম গুলবদন্নেছা মনিকা মতিন, বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, সরকারের অতিরিক্ত সচিব আনোয়ার হোসেন চৌধুরী, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ডা. এ এ মুক্তাদীর, ফরিদা মনি শহীদুল্লাহ, এডভোকেট ফৈরদৌস আরা, অধ্যক্ষ সালমা বেগম হীরা, সৈয়দ নাজমুল আহসান, এডভোকেট লুৎফুল আহসান বাবু, হাসানুল বান্না, রাসেল আহমেদ, পরিবারের পক্ষ থেকে সৈয়দ শাকিল আহাদ, সৈয়দ মুহম্ম জাহিদুল আলম, সাইদ আহমেদ সাঈদ, সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ছোট কণ্যা তানভীর ফারহানা ওয়াহেদ তুনা। সঞ্চালনা করেন টিমুনী খান।

রাষ্ট্রভাষা মতিনের স্ত্রী বেগম গুলবদন্নেছা মনিকা মতিন বলেন, মরনের পর নয়, জীবিত থাকতেই সকল ভাষা সৈনিকদের সম্মান জানানো রাষ্ট্রের দায়িত্ব। এ দায়িত্বে রাষ্ট্র ও সরকারের অবহেলা গ্রহনযোগ্য নয়।

গোলাম মোস্তফা ভুইয়া ভাষা সৈনিক রওশন আরা বাচ্চু’র মিরপুর পশ্চিম মনিপুরের তার বাসা সংলগ্ন রাস্তাটি নাম করন ভাষা সৈনিকের নামে করা লক্ষে সরকারকে পদক্ষেপ গ্রহনের আহ্বান জানান।

মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা বলেন, জাতীয়ভাবে ভাষা সেনানী রওশন আরা বাচ্চুর স্মরণ সভা অনুষ্ঠানের লক্ষে সরকার ও বাংলা একাডেমীকে দায়িত্ব গ্রহন করা উচিত।

উল্লেখ্য, গত ৩ ডিসেম্বর ২০১৯ ভাষা সৈনিক রওশন আরা বাচ্চু ইন্তেকাল করেন। তিনি ১৯৩২ সালের ১৭ ডিসেম্বর জন্মগ্রহন করেন।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More