খোলা চিঠি কিভাবে রাষ্ট্রদ্রোহী? ক্ষুব্ধ ভারতের ১৮০ বিশিষ্টজন

28
gb

জিবি নিউজ ২৪ ডেস্ক//

টানা দ্বিতীয়বারের মতো হিন্দুত্ববাদী দল বিজেপি ভারতের ক্ষমতায় আসার পর ভারতে ধর্মীয় সংখ্যালঘু মুসলিমদের জয় শ্রীরাম কিংবা জয় হনুমান স্লোগান না দেয়ার অজুহাতে নানাভাবে নির্যাতন, হেনস্থা ও হত্যার ঘটনা ক্রমাগত বেড়ে চলেছে। এই নৈরাজ্য বন্ধে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে চিঠি লেখেন দেশটির ৪৯ জন বুদ্ধিজীবী। চিঠিতে স্বাক্ষর দেওয়া ও প্রতিবাদ করার অপরাধে তাদের নামে বিহারের মুজাফফরপুর আদালতে এফআইআর দায়ের করা হয়। কিন্তু থেমে যায়নি প্রতিবাদ। গণপিটুনি বন্ধের আহ্বান জানিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি দিয়েছেন দেশটির আরো ১৮০ জন বিশিষ্ট নাগরিক।

আজ সোমবার তারা একটি চিঠি দিয়েছেন। সেখানে জানতে চেয়েছেন, কিভাবে প্রধানমন্ত্রীকে লেখা একটি চিঠি রাষ্ট্রদ্রোহী কর্মকাণ্ড হতে পারে? অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ, চলচ্চিত্রকার আনন্দ প্রধান, ইতিহাসবিদ রমিলা থাপার ও অ্যাক্টিভিস্ট হার্শ মান্দারসহ ১৮০ জনের বেশি বিশিষ্টজন এই চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন। তাদের দেওয়া চিঠিতে লেখা হয়েছে, নাগরিক সমাজের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করায় আমাদের সাংস্কৃতিক সম্প্রদায়ের ৪৯ জন সহকর্মীর বিরুদ্ধে একটি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। এটি কি রাষ্ট্রদ্রোহী কর্মকাণ্ড হতে পারে? নাকি এটি হলো জনগণের কণ্ঠরোধ করার জন্য আদালতকে ব্যবহার করে হয়রানি করা?

ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত, রাষ্ট্রদ্রোহিতাসহ কয়েকটি ধারায় ৪৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি ও বুদ্ধিজীবীদের বিরুদ্ধে যে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে তাদের মধ্যে আছেন আদুর গোপালকৃষ্ণন, গৌতম ঘোষ, শ্যাম বেনেগালের মতো খ্যাতিমান চলচ্চিত্র পরিচালকের। এছাড়াও রয়েছেন কলকাতার নামকরা অভিনয়শিল্পী সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, অপর্ণা সেন, কৌশিক সেনসহ চলচ্চিত্র জগতের বিশিষ্টজনেরা।

বিহারের আইনজীবী সুধীর কুমার ওঝা এই বুদ্ধিজীবীদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছিলেন। এই খোলা চিঠি লিখে বুদ্ধিজীবীরা দেশের ভাবমূর্তি কালিমালিপ্ত করেছেন এবং প্রধানমন্ত্রীর কৃতিত্বকে খাটো করেছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি। সেই আবেদনের ভিত্তিতে দু’মাস আগে মণিরত্নম, অপর্ণা সেনদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করার নির্দেশ জারি করেন চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুর্যকান্ত তিওয়ারি। সেই নির্দেশের ভিত্তিতেই গত বৃহস্পতিবার এফআইআর দায়ের করা হয়।

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More