ভারতে ঢুকে পড়েছে চীনা সেনাবাহিনী

84
gb

বিশেষ প্রতিনিধি জিবি নিউজ ২৪ ||

ভারতের অরুনাচল প্রদেশে চীনা সেনাবাহিনী ঢুকে পড়েছে। এমন দাবি করেছিলেন ভারতের অরুনাচল প্রদেশ রাজ্যের বিজেপির এক এমপি। যেখানে চীনারা প্রবেশ করেছে বলে দাবি করেছেন তিনি, সেই অরুণাচল প্রদেশের আনজয় জেলার সানগালাম গ্রামটি চীন সীমান্তের খুব কাছে অবস্থিত৷ রীতিমত স্পর্শকাতর এলাকা হিসেবে এটিকে চিহ্নিত করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী৷ চীন সীমান্ত থেকে এটি মাত্র ২০০ কিমি দূরে অবস্থিত৷ তবে এই দাবি প্রত্যাখ্যান করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

বুধবার ওই এমপির প্রকাশ করা ভিডিও ভুয়ি বলে দাবি করে একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে সেনাবাহিনী। কলকাতাভিত্তিক একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল এ দাবি করেছে।

বুধবার অরুণাচল প্রদেশের বিজেপি এমপি দাবি করেছিলেন অরুণাচলের প্রত্যন্ত আনজয় জেলায় ঢুকে পড়েছে চীনা সেনাবাহিনী। এমনকি একটি ব্রিজ বানিয়ে ফেলেছে বলেও দাবি করেন ওই সাংসদ। ভিডিওটি প্রকাশ্যে আসতেই চাঞ্চল্য তৈরি হয়।

এরপরই ভারতীয় সেনার তরফে দেয়া বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ”এরকম কোনো অনুপ্রবেশের ঘটনা ঘটেনি। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে যে জায়গার ছবি দেখানো হচ্ছে, সেটি আসলে ফিশ টেল। ওই এলাকায় লাইন অফ কন্ট্রোলের সীমা নিয়ে ভিন্ন ধারনা আছে। ঠিক যেমন অন্য অনেক জায়গাতেই আছে।” তবে সেনাবাহিনী গিয়ে এই দাবির সত্যতা যাচাই করবে বলে আশ্বাস দেয়া হয়েছে। যে নালার উপর ব্রিজ তৈরি হচ্ছে বলে ভিডিওতে দাবি করা হয়েছে, ‘ডিমারু’ নামের সেই ব্রিজ চিহ্নিত করা সম্ভব হয়নি বলেও জানিয়েছে সেনাবাহিনী।

বিজেপি এমপি তাপি গাও ভিডিও প্রকাশ করে দাবি করেন, এক মাস আগে ব্রিজটি বানানো হয়েছে৷ চীনা সেনাবাহিনীর সদস্যরাই এই ব্রিজ নির্মাণ করে৷ তাপির গাওয়ের মতে অরুণাচল প্রদেশ খুবই স্পর্শকাতর এলাকা৷ এখানকার পার্বত্য অঞ্চলে একাধিক অনুপ্রবেশের রাস্তা রয়েছে৷ যা নিয়ে সতর্ক হওয়া প্রয়োজন কেন্দ্রের৷

বিজেপি এমপির দাবি ওই ব্রিজের চারপাশে বুটের দাগ দেখতে পাওয়া গেছে৷ স্থানীয় বাসিন্দারাই এই খবর দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন তিনি৷ যদি এই খবর সত্যি হয়, তবে ভারতের নিরাপত্তার ক্ষেত্রে তা রীতিমত উদ্বেগের বলে জানিয়েছেন এই বিজেপি এমপি৷

উল্লেখ্য, অরুণাচল প্রদেশের আনজয় জেলার সানগালাম গ্রামটি চীন সীমান্তের খুব কাছে অবস্থিত৷ রীতিমত স্পর্শকাতর এলাকা হিসেবে এটিকে চিহ্নিত করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী৷ চীন সীমান্ত থেকে এটি মাত্র ২০০ কিমি দূরে অবস্থিত।

সেনাবাহিনীর তরফে এও উল্লেখ করা হয়েছে যে, ভারত এবং চীন দুই দেশই সীমান্তে শান্তি বজায় রাখার পক্ষপাতি। দুই দেশই ২০০৫ সালে এই সংক্রান্ত একটি চু্ক্তিতে সহমত হয়েছে।

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More