ডেঙ্গু মোকাবেলায় ব্যর্থ মেয়রদের পদত্যাগ করা উচিত : বাংলাদেশ ন্যাপ

96

 

 

রাজধানীতে এডিস মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গু ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। কয়েক মাস ধরে আলোচনা হলেও ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন ও সরকারের সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো এখন পর্যন্ত সফলতা দেখাতে পারেনি বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া।

 

তারা বলেন, মেয়রদের ব্যর্থতার পরিপ্রেক্ষিতে এ রকম পরিপ্রেক্ষিতে সাধারণ মানুষের মনে আতঙ্ক এবং ভুক্তভোগীদের মাঝে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। ভুক্তভোগীরা আর্থিকভাবেও ক্ষতির মুখে পড়েছেন। ফলে নগরবাসী মনে করে ডেঙ্গু মোকাবেলায় ব্যর্থ মেয়রদের পদত্যাগ করা উচিত। শুধু মুখে বড় বড় বুলি আউলায়েই তাদের দায়িত্ব শেষ হয়ে যায় নি। মেয়ররা কথার ফুলঝুড়ি ছড়ালেও ডেঙ্গু মোকাবেলায় ও মশা নিধনে কার্যকর কোন পদক্ষেপ গ্রহন করতে পারে নাই। ফলে মেয়রদের স্বপদে বহাল থাকার কোন নৈতিক অধিকার কি আছে ? তারে উচিত অবিলম্বে পদত্যাগ করা।

 

বুধবার (২৪ জুলাই) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় এসব কথা বলেন।

 

ডেঙ্গু প্রতিরোধে সরকার ব্যর্থ বলেই তা মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ছে বলে অভিযোগ করে নেতৃদ্বয় বলেন, এটা মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়েছে সর্বত্র। মশা নিধনের ওষুধ ক্রয় ও প্রয়োগেও দুর্নীতির আশ্রয় নেওয়া হয়েছে। এটার (ডেঙ্গু) জন্য যে পর্যাপ্ত প্রতিরোধ করা, এটার যে অ্যান্টিডট, এটার যে দরকার মানুষকে বাঁচানোর জন্য, এর কোনো পদক্ষেপ নেই। মানুষ মারা যাচ্ছে ডেঙ্গুতে এবং মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়েছে সর্বত্র।

 

তারা বলেন, সরকার এত কিছুতে সফলতা দেখাচ্ছে, অথচ মশার কাছে ব্যর্থ হয়ে গেল। কয়েকদিন আগে দেখলাম ঢাকার এক মেয়র বলছেন, মানবদেহের ক্ষতি নয়, মশা মারার এমন ভালো ওষুধ আনার চেষ্টা করতেছি। চেষ্টা করতে করতে মশা মারা আগে মানুষই মরে যাচ্ছে। সরকারের পক্ষ থেকে মশা নিধনের তেমন কোনো পদক্ষেপ নেই।