মৌলভীবাজারের তিন নদীর পানি কমছে

94

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি\

মৌলভীবাজার জেলা দিয়ে বয়েছে মনু, কুশিয়ারা ও ধলাই নদী। এই তিন নদীর পানি বর্তমানে বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তবে আগের তুলনায় নদীর পানি অনেকটা কমেছে। নদ-নদীর পানি লোকালয়ে প্রবেশ করে মৌলভীবাজারের প্রায় ৫০হাজার পরিবার বন্যার কবলে পড়েছেন। নদীর প্রতিরক্ষা বাঁধ ভেঙে ও উপচে সদর উপজেলা, রাজনগর ও কমলগঞ্জের কয়েকশত গ্রাম তলিয়ে গেছে। তলিয়ে গেছে বাড়ি-ঘর, রাস্তা-ঘাট ও ফসলি জমি। দুর্গতদের মধ্যে দেয়া হচ্ছে ত্রাণ সহায়তা। পানি ঢুকেছে প্রায় ৫০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। পাউবো সূত্রে জানা যায়, সর্বশেষ ১৬ জুলাই রাত ৯ টায় মৌলভীবাজারের মনুনদী রেলওয়ে ব্রিজ পয়েন্টে বিপদ সীমার ৪৫ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে ও চাঁদনীঘাট পয়েন্টে বিপদ সীমার ৮৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে। ধলাই নদী ৪৪ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে ও কুশিয়ারা নদী মৌলভীবাজার অংশে শেরপুর পয়েন্টে বিপদসীমার ৫৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এর আগে গত ১৫ জুলাই রাত ১১.৫৯ মিনিটে মৌলভীবাজারের মনুনদী রেলওয়ে ব্রিজ পয়েন্টে বিপদ সীমার ৭৬ সেন্টিমিটার ও চাঁদনীঘাট পয়েন্টে ৯৭ সেন্টিমিটার, ধলাই নদী ৯ সেন্টিমিটার ও কুশিয়ারা নদী মৌলভীবাজার অংশে শেরপুর পয়েন্টে বিপদসীমার ৫৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছিল। মৌলভীবাজার পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী রণেন্দ্র শংকর চক্রবর্তী জানান, ‘পানি নামার পরই ধলাই নদের তিনটি ভাঙনস্থান মেরামত করা হবে।’

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন