চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাদ্রাসা ছাত্রী অপহরণ ও ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

70

জাকির হোসেন পিংকু,চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:
চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে পাঁচ বছর পূর্বে ১৩ বছর বয়সী ৯ম ¤্রিেণ পড়–য়া এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় মো.জীবন (৩০) নামে এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদন্ড, সেই সাথে এক লক্ষ টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরও এক বছর কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। বুধবার (২৬’জুন) দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল-২ এর বিচারক শওকত আলী দন্ডিত আসামীর অনুপস্থিতিতে (পলাতক) এই সাজা ঘোষণা করেন। দন্ডিত জীবন জেলার শিবগঞ্জ উপজেলা সদরের বাসস্ট্যান্ড এলাকার আতাউর রহমান আতুর ছেলে। একই মামলায় অপর অভিযুক্ত শিবগঞ্জ বাগানটুলী গ্রামের মৃত.আব্দুল করিমের ছেলে উমর ফারুককে (৩০) খালাস দিয়েছে আদালত।
মামলার বিবরণ ও সরকারী কৌসুলী আঞ্জুমান আরা বেগম জানান, ২০১৪ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারী মাদ্রাসা চলাকালে ক্লাসের ফাঁকে ধারাল অস্ত্র গলায় ধরে মাইক্রোবাসযোগে জোর করে অপহরণ করা হয় ওই ছাত্রীকে। এ ঘটনায় ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে তিন দিন পর ১৬’ফেব্রুয়ারী শিবগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্য়াতন দমন আইনে মামলা করেন। এর ১১ দিন পর পুলিশ ২৭’ফেব্রুয়ারী ওই ছাত্রীকে জোর করে ঢাকা নেবার পথে রাজশাহী থেকে উদ্ধার করে। এছাড়া প্রধান আসামী জীবনকে একই বছরের ৭’মার্চ শিবগঞ্জের কানসাট চৌধুরীপাড়া গ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করে। পরবর্তীতে আসামী আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেয়।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও তৎকালীন শিবগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আতিকুর রেজা সরকার ওই বছরের ৩১’মে আদালতে দুজনকে অভিযুক্ত করে অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে চার্যশীট দাখিল করেন। ধারা ৭/৯(১)। সাত জনের সাক্ষ্য, প্রমাণ ও শুনানী শেষে আদালত জীবনকে দোষি সাব্যস্ত করে দন্ডিত করে ও উমর ফারুককে খালাস দেয়। আসামী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন আ্যাড.মিজানুর রহমান-২। ###