ফকিরহাটে প্রবল বর্ষনে নিম্না ল প্লাবিত শতাধিক মৎস্য ঘের পানির নিচেই জনগনের কোটি কোটি টাকার ক্ষতি

4,282
gb

ফকিরহাট প্রতিনিধি।|
বাগেরহাটের ফকিরহাটে গত কয়েক দিনের প্রবল বর্ষনে নিম্না ল প্লাবিত হয়ে শতশত মৎস্য ঘের পানের বরজ ফসলি জমির উঠতি ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বৃষ্টির পানির চাপে খাজুরার দুইটি সুইচ গেট ও বন্যা নিয়ন্ত্রন বাধে ব্যাপক ফাটল দেখা দিয়েছে। এঅবস্থায় আরো কয়েকদিন বিরাজ করলে মৎস্য ও কৃষিতে জনগনের ক্ষতির পরিমান দ্বীগুন বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
জানা গেছে, গত কয়েক দিনের প্রবল বর্ষনের কারণে উপজেলা মুলঘর ইউনিয়নের কলকলিয়া গুড়গুড়িয়া পুটিয়া, শুভদিয়ার ৮৪, তেকাটিয়া, ভাংগনপাড়, ঘনশ্যামপুর, বেতাগা ইউনিয়নের চাকুলী, মাসকাটা, ধনপোতা, পিলজংগ ইউনিয়নের বালিয়াডাঙ্গ্া, জয়পুর, পিলজংগ, বৈলতলী, বাহিরদিয়া ইউনিয়নের সাতবাড়িয়া, হুচলা, লালচন্দ্রপুর, লখপুর ইউনিয়নের খাজুরা, ভবনা, ভট্টেখামার ও নলধা-মৌভোগ ইউনিয়নের নিম্না ল প্লাবিত হয়ে শতশত মৎস্য ঘের পানের বরজ ও ফসলি জমির ধান তলিয়ে গেছে। কোন কোন এলাকায় প্রবল বর্ষনে কাচা ঘরবাড়ি ভেঙ্গে বা তলিয়ে গিয়ে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বৃষ্টির আর উজানের পানিতে সমগ্র এলাকা তলিয়ে গিয়ে জনগনের মাঝে চরম দুর্ভোগ নেমে এসেছে। উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দরা বিভিন্ন এলাকা পরির্দশন করেছেন। খাজুরা গ্রামের ইউপি সদস্য শেখ আহম্মদ আলী জানান, কয়েকদিনের প্রবল বর্ষনে ৬গেট ১০গেট সহ একটি রাস্তা চরম ঝুকিতে রয়েছে। বৃষ্টির এধারা আরো কিছু দিন চললে বন্যা নিয়ন্ত্রন বাধ ভেঙ্গে জনগনের ব্যাপক ক্ষতি হওয়ার আশংখা রয়েছেও বলে তিনি জানান। শুভদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শেখ শহীদুল ইসলাম ও মুলঘর ইউপি চেয়ারম্যান এ্যাডঃ হীটলার গোলদার বলেন, উজানের পানির সাথে বৃষ্টির পানি যোগ হয়ে সমগ্র এলাকা পানিতে তলিয়ে একাকার হয়ে গেছে। এতে ছোট বড় মৎস্য ঘের ও ফসলি জমির রোপনকৃত ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। শুধু তাই নয়, নলধা-মৌভোগ ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি রাস্তা তলিয়ে গিয়ে তা চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এছাড়া বাগেরহাট সদর উপজেলার খানপুর রাখালগাছি ও চুলকাঠির বিভিন্ন এলাকা একই ভাবে তলিয়ে মৎস্য ঘের ফসলি জমির ধান ও পানের বরজের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে বলেও স্বঃস্বঃ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও ওয়ার্ড সদস্য জানিয়েছেন।