২৬ বছর বয়সী সেই মোমেনার ৪২ বছরের জেল!

100
gb

অস্ট্রেলিয়ায় ৪২ বছরের কারাদণ্ড হয়েছে ২৬ বছর বয়সী বাংলাদেশি শিক্ষার্থী মোমেনা সোমার।

আজ বুধবার দেশটির ভিক্টোরিয়া রাজ্যের সুপ্রিম কোর্টের বিচারক লেসলি টেইলর এই আদেশ দেন।

ভিক্টোরিয়া রাজ্যের আইন কারাবিধি অনুযায়ী, সোমাকে কমপক্ষে ৩১ বছর ছয় মাস কারাগারে থাকতে হবে। এরপরেই তিনি প্যারোলের আবেদন করতে পারবেন।

২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি ১০ ফেব্রুয়ারি অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে বাড়ির মালিককে ছুরিকাঘাত করার অভিযোগে গ্রেফতার হন মোমেনা সোমা।

এর আগে ১ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ থেকে স্টুডেন্ট ভিসায় অস্ট্রেলিয়ায় যান তিনি। সেখানে মেলবোর্নে রজার সিংগারাভেলু নামের এক ব্যক্তির বাড়ি ভাড়া নেন তিনি। এরপর ৯ ফেব্রুয়ারি রজারকে হত্যার উদ্দেশ্যে ছুরি নিয়ে হামলা চালান। হামলার পরপরই সোমাকে গ্রেফতার করে দেশটির পুলিশ।

সোমার বিরুদ্ধে অস্ট্রেলীয় পুলিশের অভিযোগ, জঙ্গি সংগঠন আইএসের মতাদর্শে উদ্বুদ্ধ হয়ে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছেন।

এরপর একই বছরের আগস্ট মাসে মোমেনার বিচার শুরু করে অস্ট্রেলিয়ার ম্যাজিস্ট্রেট আদালত।

২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারির অই ঘটনার পরপরই রাজধানী ঢাকার কাজীপাড়ায় সোমাদের বাসায় যায় ডিএমপির কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের দল। সেদিন সোমার ছোট বোন আসমাউল হুসনা সুমনা কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের এক কর্মকর্তার ওপর ছুরি নিয়ে আক্রমণ চালায়।

বিষয়টির তদন্ত করে সুমনার সাক্ষ্য গ্রহণ করে কাউন্টার টেররিজম ইউনিট সে সময় জানিয়েছিল, সোমার ওপরই নির্ভরশীল ছিলেন সুমনা। তার হাত ধরেই সুমনা জঙ্গিবাদে উদ্বুদ্ধ হন।

এ বিষয়ে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্স ন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম জানিয়েছিলেন, অস্ট্রেলিয়ায় গ্রেফতার মোমেনা সোমা ও ঢাকায় গ্রেফতার ছোট বোন আসমাউল হুসনা সুমনা ধর্মের অপব্যাখ্যায় প্রভাবিত হয়ে জঙ্গিবাদে জড়ায়।

প্রসঙ্গত মোমেনার বাড়ি বাংলাদেশের নারায়ণগঞ্জে। মোমেনা নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে পড়াশোনা শেষ করেন। এরপরই তিনি উচ্চ শিক্ষার জন্য বিদেশে পাড়ি জমান।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মোমেনা সোমার চাচা আওয়ামী লীগ-সমর্থক শিক্ষকদের নীল দলের আহ্বায়ক ছিলেন।

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More