সুনামগঞ্জে পাচাঁরকৃত গরু ও চোরাই কয়লা আটক

49

নিজেস্ব প্রতিনিধি,সুনামগঞ্জঃ

সুনামগঞ্জের বালিয়াঘাট ও চাঁরাগাঁও সীমান্ত থেকে পাচাঁরকৃত চোরাই কয়লা ও গরু আটক করেছে বিজিবি। এব্যাপারে বড়ছড়া ও চাঁরাগাঁও শুল্কস্টেশনের ব্যবসায়ীরা জানান,প্রতিদিনের মতো আজ ৩১.০৫.১৯ইং শুক্রবার ভোর ৫টায় জেলার তাহিরপুর উপজেলার লালঘাট গ্রামের মাদক ও বিজিবির ওপর হামলার মামলার আসামী আব্দুল আলী ভান্ডারী,রমজান মিয়া,খোকন মিয়া,রুবেল মিয়া,সাইকুল মিয়া ও দীপক মিয়া নিজেদেরকে সুনামগঞ্জ ২৮ব্যাটালিয়নের বিজিবি অধিনায়কের সোর্স পরিচয় দিয়ে ১বস্তা কয়লা থেকে বিজিবির নামে ৮০টাকা,থানার নামে ৫০টাকা,স্থানীয় ৩ সংবাদকর্মীর নামে ৩০টাকা, ১হাজার পিছ ইয়াবা থেকে ২০হাজার টাকা,১কার্টন মদ থেকে ১হাজার টাকা,১টি গরু থেকে ৫হাজার টাকা চাঁদা নিয়ে চাঁরাগাঁও সীমান্তের বাঁশতলা ও লালঘাট এলাকা দিয়ে ভারত থেকে ১০মে.টন কয়লার সাথে বস্তা ভর্তি করে বিপুল পরিমান মদ,গাজা,ইয়াবা,অস্ত্র ও গরু পাচাঁর করে। এই খবর পেয়ে বিকাল ৫টায় অভিযান বিজিবি চালিয়ে লালঘাট গুচ্ছগ্রামের হাওরের পানি থেকে ১মে.টন চোরাই কয়লা উদ্ধার করলেও উপরের উল্লেখিত সোর্সরা অভিযানের সময় বিজিবির সাথে থাকলেও তাদেরকে গ্রেফতার করেনি। অন্যদিকে বালিয়াঘাট সীমান্তের লাকমা এলাকা দিয়ে দুপুর ২টায় অস্ত্র ও চাঁদাবাজি মামলার আসামী ইয়াবা ব্যবসায়ী ল্যাংড়া বাবুল বিজিবি ও থানার নামে ১টি গরু থেকে ৭হাজার,১বস্তা কয়লা থেকে ১২০টাকা,১হাজার পিছ ইয়াবা থেকে ৫০হাজার টাকা চাঁদা নিয়ে ভারত থেকে ৩মে.টন কয়লার সাথে বিপুল পরিমান ইয়াবা ও গরু পাচাঁর করে। এখবর পেয়ে বিজিবি অভিযান চালিয়ে ১টি গরু আটক করলেও ল্যাংড়া বাবুলকে গ্রেফতার করেনি। অপরদিকে চাঁনপুর সীমান্তের বারেকটিলা,কড়ইগড়,রাজাই, চাঁনপুর ও যাদুকাটা নদী এলাকা দিয়ে বিজিবি সোর্স পরিচয়ধারী মাদক মামলার আসামী আবু বক্কর, জম্মত আলী ও রফিকুল ১টি গরু থেকে চাঁনপুর ক্যাম্পের নামে ২হাজার টাকা,থানার নামে ১হাজার টাকা,স্থানীয় ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের নামে ৮শত টাকা,দুই মেম্মারের নামে ৬শত টাকা,স্থানীয় কয়েকজন সাংবাদিকের নামে ৩শত টাকা,১হাজার পিছ ইয়াবা থেকে ২০হাজার টাকা চাঁদা নিয়ে ওপেন গরু,মদ ও ইয়াবা পাচাঁর করলেও এব্যাপারে কোন পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে না। এব্যাপারে চাঁরাগাঁও ক্যাম্প কমান্ডার তোফাজ্জল বলেন,ভারত থেকে পাচারকৃত অবৈধ মালামালসহ চোরাচালানীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। সুনামগঞ্জ ২৮ব্যাটালিয়নের বিজিবি অধিনায়ক মাকসুদুল আলম বলেন,সীমান্ত এলাকায় বিজিবি কোন সোর্স নাই,চোরাচালান প্রতিরোধের জন্য আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

মন্তব্য
Loading...