বর্নাঢ্য আয়োজনে ইউকেবিসিসিআই-এর দ্বিতীয় বিজনেস এন্ড এন্টারপ্রেনার এক্সিলেন্স এওয়ার্ড সম্পন্ন

2,491
gb

এম এ কাইয়ূম ||

বর্নাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো ইউকে বাংলাদেশ ক্যাটলিস্টস অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (ইউকেবিসিসিআই) এর উদ্যেগে ১৫ অক্টোরব রবিবার ব্রিটেনের অভিজাত লন্ডন হিলটন পার্কলেন হোটেলে বিজনেস এন্ড এন্টারপ্রেনার এক্সিলেন্স এওয়ার্ড-২০১৭ এবং গালা ডিনার অনুষ্ঠান । এতে বৃটেন ও বালাদেশের শীর্ষ ব্যবসায়ী ,এমপি, লর্ড সহ প্রায় সহস্রাধিক বিভিন্ন শ্রেনী পেশার প্রতিনিধিরা উপস্থিত হয়ে জমজমাট  এই অনুষ্ঠানটি উপভোগ করেন।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ক্যাটাগরীতে সফল ব্রিটিশ বাংলাদেশীদের পুরস্কৃত করা হয়। এবার লাইফটাইম এচিভমেন্ট এওয়ার্ড পেয়েছেন বালাদেশের শীর্ষ ব্যবসায়ী ও ট্রান্সকম গ্রুপের চেয়ারম্যান লতিফুর রহমান। প্রথম ব্রিটিশ বাংলাদেশী এমপি রুশনারা আলীকে স্পেশাল রিকগনিশন এওয়ার্ড এবং বিশ্ব কিক বক্সিং চ্যাম্পিয়ন রুখসানা বেগমকে ইউকেবিসিসিআই ডাইরেক্টরস চয়েস এওয়ার্ড দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর নীতিমালা প্রণয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান  জর্জ ফ্রিম্যান  এমপি। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন ব্রিটেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার নাজমুল কাউনাইন, ব্যারোনেস পলা মঞ্জিলা উদ্দিন, রিচার্ড হেরিংটন এমপি, পল স্কেলি এমপি, এ্যান মেইন এমপি, স্টিফেন টিমস এমপি, টাওয়ার হ্যামলেটম বারার মেয়র জন বিগসসহ কমিউনিটির বিশিস্ট ব্যক্তিবর্গ।

অনুষ্ঠানটির প্রাণবন্ত সঞ্চালনা করেন বিবিসির সাবেক প্রেজেন্টার জেনি বন্ড।

এবার বেস্ট নিউ বিজনেস ক্যাটাগরীতে পুরস্কার পেয়েছেন ব্রিটিশ বাংলাদেশ ফ্যাশন কাউন্সিলের ফখরুল হক। কন্ট্রিবিউশন টু দ্যা ইন্ডাস্ট্রি ক্যাটাগরীতে পুরস্কার পেয়েছেন আতিক এলাহী । বিজনেস ওম্যান অব দ্যা ইয়ার ক্যাটাগরীতে পুরস্কার পেয়েছেন সনি সাদাফ হারুন। বিজনেস ইনোভেশন ক্যাটাগরীতে পুরস্কার পেয়েছেন মাহিউল মোহাম্মদ খান মুকিত । ইয়ং এন্টারপ্রেনার অব দ্যা ইয়ার ক্যাটাগরীতে পুরস্কার পেয়েছেন এহজাজ চৌধুরী। এন্টারপ্রেনার অব দ্যা ইয়ার ক্যাটাগরীতে আলিউর রহমান পুরস্কার পেয়েছেন। ইন্সেপিরেশনাল বিজনেস লিডার অব দ্যা ইয়ার ক্যাটাগরীতে পুরস্কার পেয়েছেন এম এ মুকিত মিয়া । রেস্টুরেন্ট অব দ্যা ইয়ার ক্যাটাগরীতে আসমা খানের দার্জিলিং এক্সপ্রেস পুরস্কার পেয়েছে। বেস্ট প্রোডাক্ট অব দ্যা ইয়ার ক্যাটাগরীতে নাগা কিং পুরস্কার পেয়েছে।  

বছরের অন্যতম সেরা একটি অনুষ্ঠান হিসেবে গত বছর প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানটি ছিল সফল, তথ্যবহুল এবং আনন্দঘন উতসব। স্থানীয় এবং বৃহত্তর পরিসরে এবং ব্রিটেন, বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের বিভিন্ন ধরনের ব্যবসায়িক খাতে সফলতার স্বীকৃতি প্রদান করা হয়েছিল প্রথমবার অনুষ্ঠিত পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে।

প্রথিতযশা এবং বাংলাদেশী কমিউনিটির জন্য নিবেদিত প্রাণ ইউকেবিসিসিআই-এর চেয়ারম্যান ইকবাল আহমেদ ওবিই এবং প্রেসিডেন্ট বজলুর রশিদ এমবিইসহ কয়েকজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ীর হাতে গড়া এই সংগঠন তাঁদের জ্ঞান এবং অভিজ্ঞতার আলোকে ব্যবসায়ী কমিউনিটির উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন।  

সেমিনার আয়োজনের মাধ্যমে প্রতিশ্রুতিশীল উদ্যেক্তা এবং ব্যবসায়ীদের পরামর্শ, প্রচারণা, প্রশিক্ষণ এবং ব্যবসায়ীক জনসংযোগ সুবিধা দিয়ে থাকে ইউকেবিসিসিআই। এসব সেমিনারে ব্রিটেন এবং বাংলাদেশের সরকারী মন্ত্রী, দপ্তর, সংগঠন, চেম্বার অব কমার্স এবং ব্যবসায়ীগণ উপস্থিত থাকেন। এছাড়া রোড শো আয়োজন, ব্যবসায়ীদের মধ্যে সরাসরি সম্পর্ক স্থাপন, অনুষ্ঠানমালা এবং প্রকল্প প্রণয়ন করে থাকে। ইউকেবিসিসিআই এর সহযোগীতায় এসব পরিকল্পনার ফলে নতুন এবং পুরাতন ব্যবসায়ীদের  মধ্যে যেমন আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধি পায় তেমন ব্রিটেন এবং বাংলাদেশে তাদের যোগাযোগও বাড়ে।

ইউকেবিসিসিআই প্রেসিডেন্ট বজলুর রশিদ এমবিই বলেন, “চার বছর আগে ইউকেবিসিসিআই প্রতিষ্ঠিত হলেও অত্যন্ত কম সময়ের মধ্যে ব্যবসাখাতে সাহসী এবং সম্মানীত প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে ইউকে বিসিসিআই এর পরিচালকদের মধ্যে উপস্থিত  থেকে অন্যান্য অতিথিদের সাথে এওয়ার্ড প্রদান করেন ছিলেন বিভিন্ন পর্যায়ে এওয়ার্ড প্রদান করেন ফাইন্যান্স ডাইরেক্টর নাজমুল ইসলাম নুরু,লন্ডন রিজিয়নের প্রেসিডেন্ট জামাল উদ্দিন মকদ্দুস ,পরিচালক আব্দুল কাইয়ূম খালিক জামাল ,পরিচালক হারুন মিয়া ,পরিচালক ব্যারিষ্টার আনোয়ার বাবুল মিয়া ,পরিচালক আজাদ আলী,পরিচালক অলি খান,পরিচালক সাইফুল আলম,পরিচালক কমরু আলী,পরিচালক ফারজানা হোসেন নীলা,পরিচালক 

সিদ্দিকুর রহমান জয়নান,নন এক্সিকিউটিব পরিচালক রহিমা মিয়া ,স্কাই স্পোর্টসের রিপোর্টার গ্যারি নিউটন ,বৃটিশ হাইকমিশনের পরিচালক রোজিনা হাসান ,লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাব প্রেসিডেন্ট সৈয়দ নাহাস পাশা সহ বিভিন্ন পর্যায়ের প্রতিনিধিরা।

অনুষ্ঠানের ফাকে ফাকে গান ও নৃত্য পরিবেশনা উপস্থিত অতিথিরা উপভোগ করেন ।