কমলাপুরে ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রির প্রথম দিনেই উপচেপড়া ভিড়

86
gb

আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে আজ বুধবার।

ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটতে মঙ্গলবার রাত থেকেই কমলাপুর রেলস্টেশনে অবস্থান নেন টিকিটপ্রত্যাশীরা।

সকাল ৯টার দিকে প্রথম দিনের অগ্রিম টিকিট পেতে কমলাপুর রেলস্টেশন কাউন্টারে উপচেপড়া ভিড় দেখা গেছে। কাউন্টার চত্বর ছাপিয়ে টিকিটপ্রত্যাশীদের দীর্ঘলাইন পাশের সড়ক পর্যন্ত গিয়ে ঠেকেছে। আজ ৩১ মের টিকিট বিক্রি হচ্ছে।

সকালে সরেজমিন রেলস্টেশনে গিয়ে দেখা যায়, কাউন্টারের সামনের ফাঁকা জায়গা ছাড়িয়ে ভিড়ের বিস্তৃতি স্টেশনের প্রবেশপথ পর্যন্ত। কাউন্টারের সামনে শুধু টিকিটপ্রত্যাশী মানুষ আর মানুষ।

লাইনে অপেক্ষারত কয়েকজন টিকিটপ্রত্যাশীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত থেকে লাইনে আছেন তারা।

নীলসাগর ট্রেনের টিকিট পেতে গত রাত থেকে স্টেশনে অপেক্ষা করছেন কামাল খান। তিনি বলেন, সড়কপথের যানজট এড়াতে ট্রেনের টিকিট কাটতে এসেছি। রাত এখানেই কাটিয়েছি। এখন সোনার হরিণ টিকিটি পেলেই হয়।

জানা যায়, বুধবার ৫ দিনব্যাপী ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়।

রাজধানীর ৫টি স্থান ও চট্টগ্রাম রেলস্টেশন থেকে সকাল ৯টায় টিকিট বিক্রি শুরু হয়। আজ ৩১ মের টিকিট বিক্রি হচ্ছে।

বুধবার থেকে ২৬ জুন পর্যন্ত (৫ দিনব্যাপী) ঢাকার কমলাপুর, বিমানবন্দর তেজগাঁও, বনানী, পুরনো ফুলবাড়িয়া ও চট্টগ্রাম রেলস্টেশন থেকে সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিক্রি হবে। কাউন্টারে অগ্রিম ৫০ শতাংশ টিকিট বিক্রি করা হবে।

বাকি ৫০ শতাংশ ই-টিকিটে বিক্রি হবে। কাউন্টার এবং ইন্টারনেটে একই সময়ে টিকিট বিক্রি শুরু হবে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ইন্টারনেটে টিকিট বিক্রি না হলে সেসব টিকিট কাউন্টারে চলে আসবে। কাউন্টার থেকে সাধারণ যাত্রীরা সেই টিকিট কাটতে পারবেন।

আজ ৩১ মে’র অগ্রিম টিকিট বিক্রি হচ্ছে। কাল ২৩ জুন বিক্রি হবে ১ জুলাইয়ের টিকিট, একইভাবে ২৪ জুনের টিকিট ২ জুলাই, ২৫ জুনের টিকিট ৩ জুলাই এবং ২৬ জুনের টিকিট ৪ জুলাই বিক্রি হবে। কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে দেয়া হবে, ঢাকা থেকে রাজশাহী, খুলনা, পঞ্চগড়, চিলাহাটি, রংপুর, লালমনিরহাট, সিরাজগঞ্জ ও ঈশ্বরদীগামী ট্রেনের টিকিট।

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More