ফকিরহাটের মৌভোগে প্রতিপক্ষেরহামলায় নারীসহ ৮জনগুরুত্বর জখম

55
gb

 

ফকিরহাট প্রতিনিধি।
বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার নলধা ইউনিয়নের মৌভোগ পশ্চিমপাড়ায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায়
৩নারীসহ কমপক্ষে ৮জন গুরুত্বর আহত হয়েছেন। আহতদের প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য
৫জনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে বৃদ্ধা শাহিনা বেগমের অবস্থা আশংকাজনক। স্থানীয় ও
ভুক্তভোগীদের নিকট থেকে জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুরে নাজমুল শেখ নামের একজন মৎস্য ব্যবসায়ী একটি পিকআপে সাদা মাছ
এনে মৌভোগ পশ্চিপাড়ার একটি সড়কের পাশে পিকআপ রেখে মাছ নামানোকে কেন্দ্র করে একই এলাকার হোসেন আলী শেখের
সাথে নাজমুলের বাকবিতম্বার সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে এরই জের ধরে এদিন বিকেল সাড়ে ৫টায় হোসেন আলী, তার সহযোগী
ফজলু শেখ, নুর ইসলাম শেখ, নুরনবী শেখ, হাসান শেখ, আরিফ শেখ, মনিরুল শেখ, বাটুল শেখ সহ ১০/১২ মিলিত হয়ে দা, লাঠি ও
লোহার রড দিয়ে আকস্মিক অতর্কিতভাবে হামলা চালায় নাজমুল শেখের পরিবারের উপর। এসময় ঠেকাতে আসা লোকজনের উপরও
তারা হামলা চালায়। এতে মারাত্বক জখম হয়েছে নাজমুল শেখ (৩০), ভাই শরিফুল ইসলাম (৩৩) ও তরিকুল শেখ (৩৬), বৃদ্ধা মা শাহিনা
বেগম (৬০), রাজ আলী শেখ (৪৫), এর মাতা ছামেলা বেগম (৭০), সাইফুল শেখ (৩৫), আছমা বেগম (৩৮)। এদিকে এঘটনায় অত্র
এলাকায় উভয় পক্ষের মাঝে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন মুহুর্তে পুনঃরায় বড় ধরনের সংঘর্ষের আশংকা করা হচ্ছে। খবর
পেয়ে মডেল থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আবু জাহিদ শেখের হস্তক্ষেপে মৌভোগ স্থানীয় ফাড়ি পুলিশ ঘটনা
স্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি সম্পুন্ন নিয়ন্ত্রণে আনেন। এ ব্যাপারে নাজমুলের ভাই শরিফুল ইসলাম নিজ বাদী হয়ে সংশ্লিষ্ট
মডেল থানায় লিখিত আভিযোগ করেছেন। তবে ঘটনার সাথে জড়িতরা সকলে গা ঢাকা দিয়েছে। তাদেরকে আটকের জোর চেষ্টা
চালছে বলে পুলিশ জানিয়েছেন(পিকেএ)। ####

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More