বড়লেখায় চিন্তাপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মত বিনিময় সভা

87
gb

বড়লেখা প্রতিনিধি:

বড়লেখায় সুজানগর ইউনিয়নে চিন্তাপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং ও অভিবাকদের এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত বুধবার (১৭ এপ্রিল) দুপুরে অভিবাবক ও ম্যানেজিং কমিটির মতবিনিময় সভার সভাপতিত্ব করেন, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মিনহাজুর রহমান ও সঞ্চালনা করেন সহকারী শিক্ষক আছকর আলী। এসময় ৯নং সুজানগর ইউপি সদস্য নুর হোসেন প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, বিদ্যালয়ে পরিবেশ বজায় রাখার দায়িত্ব হল শিক্ষকদের ও ম্যানেজিং কমিটির। কিছুদিন ধরে কতিপয় লোক,স্কুলের অভিবাবক নয় তারা, প্রধান শিক্ষিকা অঞ্জনা কে নিয়ে বিভিন্ন অপবাদ চালাচ্ছে যে, ছাত্রদের মারধর করেন, ছাত্রদের দিয়ে মাটি ভরাটের কাজ করানো হয়েছে এবং প্রায় বিশ বছর যাবত ‍বিদ্যালয়ের দায়িত্বরত বিদায় আর থাকা যাবেনা ইত্যাদি ও প্রধান শিক্ষিকা কে ভয়ভিতি দেখানো হচ্ছে। এলাকার কতিপয় লোক সভায় না আসার জন্য অভিভাবকদের বাধা প্রদান করে। আমি বলতে পারি, ছাত্র-ছাত্রী বিদ্যালয়ে না আসলে খোঁজ খবর নেন অন্য স্কুলে আজও দেখিনি এরকম শিক্ষক। সভায় অভিভাবকদের সর্বসম্মতিক্রমে প্রধান শিক্ষিকাকে বিদ্যালয়ে রাখার জন্য এবং সহযোগীতা অভ্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। কতিপয় লোকের লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ৮ই এপ্রিল উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা রফিজ মিয়া তদন্তে আসলে মাটি কাটার কাজ সম্পর্কে ছাত্রদের জিজ্ঞাসা করলে ছাত্ররা স্বেচ্ছায় মাটি ভরাটের কাজ করেছে বলে স্বীকারোক্তি দেয়। বিধায় অভিযোগের কোন সত্যতা প্রমাণিত হয়নি। বিদ্যালয়ে তদন্ত কালে উক্ত অভিযোগের তিন স্বাক্ষরিতদের মধ্যে জেবলু আহমদ নামে একজনকে উপস্থিত দেখতে পাওয়া যায়। প্রভাবশালী জেবলু আহমদ এলাকার সহজ সরল কিছু লোক নিয়ে উপস্থিত থেকে তিনি সহ অন্যরা প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে অবস্থান নেন। উক্ত সভায় এছাড়াও বক্তব্য রাখেন, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা অঞ্জনা রানী, সহকারী শিক্ষক বিলকিছ, সাহিদা, সাংবাদিক সিরাজুল ইসলাম রিপন, অভিবাবক হবিব আলী, সফিক মিয়া, কামাল আহমদ, হেলাল, ওয়ারীছ, লিলন, সাহিন, নুরই মিয়া, সেলিম,আহমদ, এবাদ, নাজমিন বেগম, ফাতেমা, রুকিয়া আক্তার, সন্ধ্যা রানী কপালী প্রমুখ।

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More