বিশ্বকাপে স্ত্রীদের পাশে পাবেন না পাকিস্তান ক্রিকেটাররা

151

বিশ্বকাপ চলাকালীন স্ত্রী-সন্তানদের সঙ্গে রাখতে পারবেন না পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা। অবশেষে এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। যদিও প্রথমে শোনা গিয়েছিল, এবারের ক্রিকেটের সর্বোচ্চ আসরে পরিবার-পরিজনদের সঙ্গে নিতে পারবেন সরফরাজরা। তবে শনিবার সেই সম্ভাবনা বাতিল করেছে পিসিবি।

পাকিস্তানের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম ডন অনলাইনের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, বিশ্বকাপে খেলায় খেলোয়াড়দের মনোযোগ ধরে রাখতে এই নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

আগামী ৩০ মে পর্দা উঠবে বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসরের। এর আগে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিপক্ষীয় সিরিজ রয়েছে পাকিস্তানের। দুই টুর্নামেন্টের উদ্দেশে আগামী ২৩ এপ্রিল দেশটির বিমান ধরবেন সরফরাজ বাহিনী।

ইংলিশদের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ সিরিজ ও বিশ্বকাপ মিলিয়ে ৮৩ দিনের দীর্ঘ সফর। অবশ্য ইংল্যান্ড সিরিজে ক্রিকেটাররা চাইলে স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে যেতে পারবেন। তবে পরিবারের সদস্যদের যাতায়াতসহ থাকা-খাওয়ার সমস্ত খরচ তাদেরই ব্যক্তিগতভাবে বহন করতে হবে। এই খরচের কানাকড়িও দেবে না পিসিবি। অধিকন্তু বিশ্বকাপ ক্যাম্পে ঢোকার আগেই তাদের বিদায় জানাতে হবে।

সাধারণত বিদেশ সফরে পরিবার সঙ্গে রাখতে ক্রিকেটারদের অনুমতি দেয় পাক বোর্ড। কারণ, পাকিস্তানের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট হয় না। ফলে বছরের বেশিরভাগ সময়ই তাদের বাইরে থাকতে হয়। এক্ষেত্রে তাদের স্ত্রী, বাচ্চাকাচ্চাদের খরচও বহন করে বোর্ড। তবে বিশ্বকাপে এর ব্যত্যয় ঘটছে।

গেল বৃহস্পতিবার বিশ্বকাপের জন্য ১৫ এবং ইংল্যান্ড সিরিজের জন্য ১৭ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে পাকিস্তান। এর পর গেল শুক্রবার সেসব ক্রিকেটারদের ইসলামাবাদের বানি গালার সরকারি বাসভবনে ডাকেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ও বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইমরান খান। দীর্ঘ বৈঠকে তাদের বিভিন্ন পরামর্শ ও নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করেন তিনি।

মন্তব্য
Loading...