নুসরাত হত্যা: আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি ক্রিকেটার সাইফউদ্দিনের

48

ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনা গোটা জাতিকে নাড়িয়ে দিয়েছে। সারা দেশে বইছে নিন্দার ঝড়। সোশ্যাল মিডিয়ায় উঠেছে সমালোচনার ঢেউ।

এই ফেনী থেকেই উঠে এসেছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের তারকা অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। নিজ এলাকার কোনো মানুষ এতটা হিংস্র হতে পারে, বিষয়টি ভাবতেই কষ্ট হচ্ছে তার। এই হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন তিনি।

সাইফউদ্দিন মনে করেন, এমন ন্যক্কারজনক ঘটনা যাতে ভবিষ্যতে আর না ঘটে, সে জন্য ফেনীর মানুষকে প্রতিবাদী হতে হবে। প্রত্যেকেরই এর প্রতিবাদ করা উচিত।

নুসরাতের লড়াই থেমে যাওয়ায় মন খারাপ সাইফের। বিশেষ করে তার জেলায় এমন ঘটনা ঘটতে পারে, মানতে পারছেন না তিনি। সম্ভাবনাময়ী ও প্রতিশ্রুতিশীল ক্রিকেটার বলেন, ফেনী শান্তিপ্রিয় এলাকা। এখানে এমন অমানবিক ঘটনা আসলেই আমাকে খুব পীড়া দিচ্ছে। আমি মানুষজনকে বলব, সরকারের একার পক্ষে এমন অপরাধ রোধ করা সম্ভব নয়। আমাদের নিজ থেকে প্রতিবাদ করতে হবে।

নুসরাতকে আগুনে পুড়িয়ে মারার প্রধান আসামি ও অভিযুক্ত সোনাগাজী মাদ্রাসার অধ্যক্ষ এসএম সিরাজউদ্দৌলা। তার মদদপুষ্ট হয়ে এই ঘৃণ্য ঘটনা ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

পেস বোলিং এই অলরাউন্ডার বলেন, অপরাধী যেই হোক, আমি চাই তাদের সর্বোচ্চ সাজা হোক। আমাদের তাকে আইনের আওতায় আনতে হবে। দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

সামনে বিশ্বকাপ। এমন সময়ে চোটের সঙ্গে লড়াই করছেন সাইফউদ্দিন। তবে এসব নিয়ে বেশি চিন্তা করে ঘুম নষ্ট করতে চান না তিনি। সাইফউদ্দিন বলেন, নিজেকে ফিট রাখাই বড় চ্যালেঞ্জ। সত্যি বলতে কী, আমার সে রকম উদ্বেগ নেই। আমার একমাত্র চিন্তা নিজেকে ম্যাচের জন্য ফিট রাখা। বিশ্বকাপ সামনে, আপাতত আমি এটা নিয়েই ভাবছি।’

মন্তব্য
Loading...