সিকৃবি ছাত্র হত্যা: এবার হেলপার মাসুকও আটক

49

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (সিকৃবি) ছাত্র ওয়াসিম আব্বাস (২১) হত্যার ঘটনায় উদার পরিবহনের বাসহেলপার (সহকারি) মাসুক আলীকে (৪০) আটক করা হয়েছে।

শনিবার রাত ১টার দিকে সুনামগঞ্জের ছাতকের সিংচাপইর গ্রামের শশুরবাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়।

মাসুক সুনামগঞ্জ পৌর শহরের তেঘরিয়া আবাসিক এলাকার দৌলত আলীর ছেলে।

এর আগে শনিবার রাত ১১টায় সিলেটের কদমতলী বাস টার্মিনাল থেকে বাসচালকেও পুলিশ আটক করে।

রাতে সুনামগঞ্জ পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান যুগান্তরকে জানান, জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) ও ছাতক থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের উপকমিশনার জেদান আল মুসা জানান, এসএমপির দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে বাসচালক জুয়েল আহমদকে শনিবার রাত ১১টায় কদমতলী বাস টার্মিনাল থেকে আটক করা হয়।

জুয়েল মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার বাড়াউরা গ্রামের মৃত আজিদ মিয়ার ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও সিকৃবির শিক্ষার্থীরা জানান, ময়মনসিংহ থেকে সিলেটগামী উদার পরিবহনের বাসে (ঢাকা মেট্রো-ভ-১৪-১২৮০) সিকৃবির ১১ শিক্ষার্থী ওঠেছিলেন।

তারা শেরপুর এসে প্রয়োজনীয় কাজের জন্য নেমে যাচ্ছিলেন। তখন ভাড়া নিয়ে বাসচালক ও হেলপারের সঙ্গে তাদের বাকবিতণ্ডা হয়।

একপর্যায়ে ভাড়া পরিশোধ করে তারা বাস থেকে নেমে আসছিলেন। ওয়াসিম আফনান ছিলেন সবার পেছনে। তিনি বাস থেকে নামার আগেই তাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়া হয়। এরপর চালক বাসের স্পিড বাড়িয়ে দেয়।

বাসটি ওয়াসিমকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। সঙ্গে থাকা সহপাঠী ও স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মন্তব্য
Loading...