ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে সন্ত্রাসীর গুলিতে নিহত হুসনে আরা পারভীনের শুক্রবার দাফন করা হবে ক্রাইস্টচার্চে

205
gb

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে সন্ত্রাসীর গুলিতে নিহত সিলেটের গোলাপগঞ্জের হুসনে আরা পারভীনের (৪০) লাশ শুক্রবার দাফন করা হবে সেখানেই।

সন্ত্রাসীর হামলার শিকার ক্রাইস্টচার্চের সেই আল নূর মসজিদের পাশে জানাজা শেষে তাকে সমাহিত করা হবে।

গত ১৫ মার্চ পঙ্গু স্বামীর সঙ্গে জুমার নামাজ পড়তে গিয়ে সন্ত্রাসীর গুলিতে নিহত হন তিনি। সন্ত্রাসীদের এলোপাতাড়ি গুলির মধ্যে স্বামীকে খুঁজতে গিয়ে নিহত হয়েছিলেন হুসনে আরা পারভীন।

ঘটনার পর নিহত হুসনে আরা পারভীনের দেশে থাকা ভাইসহ আত্মীয়স্বজনের মধ্যে নেমে আসে বিষাদের কালো ছায়া। এ ঘটনায় তার পরিবারের পাশাপাশি জাঙ্গালহাটা গ্রামসহ গোটা উপজেলায় নেমে আসে শোকের ছায়া।

এদিকে নিহত হুসনে আরা পারভীনের লাশ দেশে আনার চেষ্টা করা হয়েছিল পারিবারিকভাবে। কিন্তু ঝুটঝামেলা থাকায় শেষ পর্যন্ত সেখানেই লাশ দাফনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সন্ত্রাসীর হাত থেকে প্রাণে বেঁচে যাওয়া পঙ্গু স্বামী ফরিদ উদ্দিনের বরাত দিয়ে নিহত হুসনে আরা পারভীনের বড় ভাই নাজিম উদ্দিন বৃহস্পতিবার যুগান্তরকে বলেন, আমার ছোট বোন হুসনে আরা পারভীন নিহতের পর আমরা চেয়েছিলাম লাশ দেশে এনে দাফন করব। কিন্তু জটিলতা থাকায় আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি নিউজিল্যান্ডেই তাকে দাফন করব। সেখানে স্বামী ফরিদ উদ্দিন ছাড়াও নিহত হুসনে আরা পারভীনের ১৪ বছর বয়সী মেয়ে সিফা আহমদ রয়েছে।

এদিকে হুসনে আরা পারভীনের নিহতের পর এখনো শোক কেটে উঠতে পারেনি জাঙ্গালহাজা গ্রামসহ গোটা উপজেলাবাসী। এ গ্রামেই নিহত হুসনে আরা পারভীনের বাবার বাড়ি।

উল্লেখ্য, ১৫ মার্চ শুক্রবার রীতিমতো ঘোষণা দিয়ে ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে সন্ত্রাসী হামলা চালায় উগ্র মুসলিমবিদ্বেষী শ্বেতাঙ্গ সন্ত্রাসী অস্ট্রেলীয় নাগরিক বেনটন ট্যারেন্ট। এতে নিহত হন ৫০ মুসল্লি। এর মধ্যে ৫ জন বাংলাদেশি। এ ছাড়া গুরুতর আহত হন আরও ৫০ জন।

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More