হবিগঞ্জের মেয়র গউছসহ বিএনপির ১৪ নেতাকর্মী কারাগারে

নির্বাচনী সহিংসতা

70

হবিগঞ্জে বিএনপি প্রার্থী সাবেক পৌর মেয়র ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জিকে গউছ এবং তার ভাই জিকে গফফারসহ ১৪ নেতাকর্মীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

গত ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় নির্বাচনের দিন সহিংসতার ঘটনায় করা চার মামলায় তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।

সোমবার জেলা ও দায়রা জজ এবং বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক আমজাদ হোসেনের আদালতে হাজির হয়ে এসব মামলার ৩৩ আসামি জামিন আবেদন করেন। এ সময় বিচারক ১৪ জনকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। বাকিদের জামিন আবেদন মঞ্জুর করা হয়।

তারা হলেন- বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাবেক পৌর মেয়র জিকে গউছ, তার ভাই জিকে গফফার, মো. ছামিউল বাছির, এনামুল হক এনাম, আবদুস সাহেদ, শাহরিয়ার সৌরভ, আফিল উদ্দিন, এমদাদুল হক, শাহ রাজিব আহমেদ রিংগন, মো. মাহবুব, কোহিনুর মিয়া, জহিরুল হক শরিফ, সুমন মিয়া ও মিজানুর রহমান বাবুল।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পিপি সিরাজুল হক চৌধুরী।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) সিরাজুল হক চৌধুরী। তাকে সহযোগিতা করেন আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সদস্যরা।

আদালত সূত্রে জানা যায়, গত ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দিন সদর উপজেলার তেতৈয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, হবিগঞ্জ শহরের জেকেঅ্যান্ডএইচকে হাইস্কুল, সওদাগর কৃষ্ণধন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও স্টাফ কোয়ার্টার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কেন্দ্রে সহিংসতা এবং ভোটারদের ভোট প্রদানে বাধা দেয়া হয়।

এসব ঘটনায় পৃথক চার মামলা করা হয়। প্রতিটি মামলায় বিএনপি প্রার্থী জিকে গউছ ও তার ভাই জিকে গফফারসহ অনেক বিএনপি নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়। ওই মামলায় আসামিরা উচ্চ আদালত থেকে চার সপ্তাহের আগাম জামিন নেন।

সোমবার তাদের মধ্যে ৩৩ জন হবিগঞ্জের জেলা ও দায়রা জজ এবং বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক আমজাদ হোসেনের আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন।

বিচারক ১৪ জনের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মন্তব্য
Loading...