৮ লাখ ইউরো ফাঁকির দায়ে যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূতসহ ৪ জনের কারাদণ্ড

237
gb

জিবি নিউজ 24 ডেস্ক//

ভারতীয় রেস্টুরেন্ট পরিচালনার সময়ে ৮ লাখ ইউরো ট্যাক্স ফাঁকির দায়ে ৪ জনকে কারাদণ্ড দিয়েছে যুক্তরাজ্যের একটি আদালত। দণ্ড পাওয়া ওই চারজন হলেন মোহাম্মদ শরিফ উদ্দিন (৪৮), মিজানুর রহমান (৪৪), সাদিকুর রহমান (৪৫), এবং আবুল কামাল (৪১)। কামাল ছাড়া বাকি তিনজনের বিরুদ্ধে ৫ লাখ ইউরোর ট্যাক্স বিষয়ে মিথ্যা তথ্য দেওয়ার অভিযোগ প্রমাণ হয়েছে। এছাড়া চারজন মিলে তাদের আয়ের বিষয়ে আরও ২ লাখ ৯৫ হাজার ইউরোর ট্যাক্স এড়াতে মিথ্যা তথ্য দিয়েছেন বলে শুল্ক ও গোয়েন্দা বিভাগের তদন্তে উঠে এসেছে।

২০১‌৫ সালে এই চারজনকে আটক করা হয়। মিজানুর ও সাদিকুরের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে জব্দ করা হয় ট্যাক্স ফাঁকির নথিপত্র। ২০১৭ সালের ১৪ ডিসেম্বর বার্মিংহাম আদালতে তাদের বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগের শুনানি শুরু হয়। একই আদালতে শনিবার তাদের দণ্ড ঘোষণা করা হয়।

মিজানুর রহমান ও সাদিকুর রহমানকে তিন বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এছাড়া শরিফ উদ্দিন ও আবুল কামালকে দেওয়া হয়েছে দুই বছর করে কারাদণ্ড। কারাদণ্টড ছাড়াও প্রত্যেককে মোট ২৪ বছর পরিচালক হিসেবে কাজ করা থেকে বিরত থাকার আদেশ দেওয়া হয়েছে।

আদালতের শুনানিতে বলা হয়েছে, মিজানুর রহমান অর্থ ব্যয় করতে ফ্লোরিডা, মরিশাস আর দুবাইয়ে ছুটি কাটিয়েছেন। এক লাখ ৭৫ হাজার ইউরোর বেশি পাঠিয়েছেন বাংলাদেশে। মধ্যপ্রাচ্যে কিনেছেন সম্পত্তি।

শুল্ক ও গোয়েন্দা বিভাগের জালিয়াতি তদন্ত বিভাগের সহকারি পরিচালক রিচার্ড মায়ের বলেছেন, এই জালিয়াতরা পদ্ধতিগতভাবে ট্যাক্স ব্যবস্থাকে অবজ্ঞা করে নিজেদের জীবনমানের উন্নয়নে অর্থ ব্যয় করেছেন। তারা কর্মীদের প্রাপ্য অর্থ নিয়ে নিয়েছেন আর করদাতাদের অর্থ চুরি করেছেন। এখন তারা এর মূল্য চুকাবে আর ফাঁকি দেওয়া অর্থ ফিরিয়ে নেওয়া হবে।