রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা বিশ্বের বিপন্ন মানবতার বাতিঘর

222
gb

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রমাণ করেছেন তিনি বিশ্বের বিপন্ন মানবতার বাতিঘর। শেখ হাসিনা শুধু রাজনৈতিক নয়, তিনি রাষ্ট্রনায়ক।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজনীতিকের পথ অতিক্রম করে রাষ্টনায়ক হয়েছেন। কারণ, একজন রাজনীতিক একটি নির্বাচনের পর আরেকটি নির্বাচন নিয়ে চিন্তা করে। আর একজন রাষ্ট্রনায়ক পরবর্তী জেনারেশন নিয়ে চিন্তা করে।

ওবায়দুল কাদের আজ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭১তম জন্মদিন উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন। শেখ হাসিনার জন্মদিনকে জনগণের ক্ষমতায়ন দিবস হিসেবে পালনের ডাক দিয়ে যুবলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আলোচনা সভাটি আয়োজন করে। আলোচনা সভা ছাড়াও সংঠন্টির আয়োজনে সেখানে কোরআন খতম, রক্তদান,  মিলাদ মাহফিল ও দুস্থ্যদের মাঝে খাবার বিতরন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে ৫ দফা প্রস্তাব সারা বিশ্বে প্রশংসা পেয়েছে। জাতিসংঘ তা গ্রহণ করেছে। চীন ও রাশিয়া এখন সহানুভূতি দেখাচ্ছে।

আজকের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে আশা করি চীন ও রাশিয়া সমর্থন দিয়ে সর্ব সম্মতিক্রমে পাশ করবে। এটা গোটা বাঙালির মনের কথা।

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী  বলেন, ‘জনগণের ক্ষমতায়নের নেত্রী, ডটার অব পিস, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার ৭১ তম জন্মদিন আজ, তিনি জীবনের অর্ধেকটা সময় পার করেছেন দেশের বৃহত্তম দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর সভাপতি হিসেবে, বার বার মৃত্যুর ঝুকি নিয়েছেন, হত্যা ও ষড়যন্ত্রের ধংসস্তুপের মধ্যে তিনি মানুষের আশা জাগানিয়া গান, অধিকারের স্বপ্ন। সারা বিশ্বে তিনি মানবতার প্রতিক হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন। মধ্য আয়ের দেশ হয়েও বাংলাদেশ রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা প্রায় ৯ লাখ রোহিঙ্গা শরনার্থীদের আশ্রয় দিয়েছেন। কারো সাহায্যের অপেক্ষায় না থেকে অসহায় মানুষের পাশে দাড়িয়ে “ মাদার অব হিউম্যানিটি” আখ্যা পেয়েছেন। ‘

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগ সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট এর সভাপতিত্বে ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রেজার পরিচালনায়  আরো বক্তব্য রাখেন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মোঃ হারুনুর রশীদ, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিন এর সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম মুরাদ, সাভারের এমপি এনামুর রহমান, যুবলীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য শহীদ সেরনিয়াবাত, মোঃ ফারুক হোসেন, মাহবুবুর রহমান হিরন, আব্দুস সাত্তার মাসুদ, আতাউর রহমান, অধ্যাপক এবিএম আমজাদ হোসেন, আনোয়ারুল ইসলাম,   যুগ্ম সম্পাদক মহিউদ্দিন আহম্মেদ মহি, সুব্রত  পাল, নাসরিন জাহান সেফালি, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য কাজী আনিসুর রহমান, মিজানুল ইসলাম মিজু, ইকবাল মাহমুদ বাবলু, স্বেচ্ছা সেবক লীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিন সভাপতি আরিফুর রহমান টিটু, ছাত্রলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিন সভাপতি বায়জিদ আহম্মেদ খাঁন, ঢাকা মহানগর যুবলীগ সহ সভাপতি মাইনউদ্দিন রানা, সোহরাব হোসেন স্বপনন, সারোয়ার হোসেন মনা, হারুনুর রশীদ, যুগ্ম সম্পাদক মোমিনুল হক সাঈদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান বকুল, গাজী সারোয়ার হোসেন বাবু, মাকসুদুর রহমান, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য আরমান হক বাবু, এমদাদুল হক এমদাত প্রমুখ।