Bangla Newspaper

সরকার উলঙ্গ হয়ে গেছে : নোমান

55

সরকার এখন উলঙ্গ হয়ে গেছে, তাই তাদের আর লজ্জা শরমের কোন বালাই নাই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান।তিনি বলেন, স্বৈরাচারি সরকার নিজেদের ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করতেই নির্লজ্জের মত সংবিধানে প্রদত্ত জনগনের অধিকারকে পদদলীত করছে। গুম-খুনের মাধ্যমে আতঙ্ক সৃষ্টি করে জনগনের মুখে তালাবদ্ধ করতে চাচ্ছে। সরকার ভুলে গেছে জনস্রোতের কাছে কোন স্বৈরাচারই টিকে থাকতে পারে না।মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাব কনফারান্সে লাউঞ্জে ‍”দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার কারামুক্তির দাবীতে” জিয়া সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।তিনি বলেন, খুলনার নির্বাচনই প্রমান করছে নির্বাচন কমিশন সরকারের আজ্ঞাবহ। তারা জনগনের পক্ষে নয়, গণতন্ত্রের পক্ষে নয়। এই নির্বাচনের পর পর্যালোচনা করে বিএনপিকে নতুন কর্মকৌশল নির্ধারন করতে হবে। খুসিক নির্বাচনের পর ইসির উপর কতটা আস্থা রাখা যায় তা চিন্তা করতে হবে।দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে করাগারের নেয়া প্রসঙ্গে আবদুল্লাহ আল নোমান বলেন, দেশনেত্রীকে কারাগারে নেয়া হয়েছে মুক্তি দেবার জন্য নয়। সরকার তাকে কারাগারে রেখেই আগামী নির্বাচনের বৈতরনি পার হতে চাচ্ছে। কারণ সরকার বেগম জিয়ার জনপ্রিয়তাকে ভয় পায়।তিনি বলেন, দেশনেত্রী শুধু বিএনপির নেত্রী নন। তিনি গণতন্ত্রের নেত্রী, জনগনের নেত্রী। দেশপ্রেমিক-গণতান্ত্রিক শক্তির ঐক্যের প্রতীক।তিনি বলেন, রাজনৈতিক চেতনার কাছে সকল অপশক্তির পরাজয় অনিবার্য। রাজপথ আর রাজনৈতিক সংগ্রামের মাধ্যমেই বেগম জিয়াকে মুক্ত করতে হবে। এর কোন বিকল্প নাই।সংগঠনের সভাপতি মো. হাসানুল ইসলাম রাজা’র সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশগ্রহন করেন সাবেক মন্ত্রী এডভোকেট গৌতম চক্রবর্তী, বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, এনডিপি ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, বিএনপির নির্বাহী সদস্য এডভোকেট রফিক শিকদার, মুহম্মদ সালাউদ্দিন খান পিপিএম, বরিশাল উত্তর জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সাত্তার খান, মীর হোসেন মিলন প্রমুখ।

Comments
Loading...