বিষাক্ত মদে ইউপি সদস্যের মৃত্যু

298
gb

ইয়ানূর রহমান :

শুক্রবার সকালে অভয়নগর উপজেলার শুভরাড়া ইউনিয়নের সাত নম্বর ওয়ার্ড সদস্য হোসেন আলী ফকির (৪০) মারা গেছেন। বিষাক্ত মদ পান করে তার মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ করা হচ্ছে।

এলাকাবাসী ও মৃতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার রাত ১১টার দিকে কয়েক বন্ধু হোসেন আলীকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। গভির রাতে তারাই হোসেনকে মোটরসাইকেলে করে বাড়িতে পৌঁছে দেয়। এ সময়ে তিনি নেশাগ্রস্থ ছিলেন।

পরের দিন বৃহস্পতিবারও তিনি বিছানা থেকে উঠতে পারেননি। শুক্রবার সকালে তাকে স্থানীয় একজন গ্রাম্য চিকিৎসকের কাছে নেওয়া হয়। অবস্থা আশংকাজনক দেখে ওই গ্রাম্য চিকিৎসক তাকে হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেন। সকাল দশটার দিকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হোসেন আলীর চাচাতো ভাই শাহাজান ফকির (৩৮) জানান, তার ভাই কে সময় নেশা করতেন। পরে সামাজিক কারণে তিনি নেশা ছেড়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু তার বন্ধুরা বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে বুধবার রাতে বিষাক্ত মদ পান করিয়ে মোটরসাইকেলে করে বাড়ি পৌঁছে দিয়ে যায়। ওই বিষাক্ত মদের কারইে তার মৃত্যু হয়েছে।

অভয়নগর থানার ওসি শেখ আব্দুল গনি মিয়া বলেন, মদ পানে ইউপি সদস্য হোসেন আলীর মৃত্যু হয়েছে বলে শুনেছি। লাশ খুলনা মেডিকেলে আছে। আমি খুলনার সোনাডাঙ্গা থানাকে লাশের ময়নাতদন্তের জন্য বলেছি। ময়নাতদন্তের পর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে।

মৃত হোসেন আলী শুভরাড়া ইউনিয়নের ইছামতি গ্রামের মৃত আবু তালেব ফকিরের ছেলে। তার স্ত্রী ও দুটি শিশুপুত্র রয়েছে। পেশায় কৃষক হোসেন শুভরাড়া ইউনিয়নের সাত নম্বর ইছামতি ওয়ার্ডের সদস্য ও ইউনিয়ন যুবলীগের প্রচার সম্পাদক ছিলেন।