মহান একুশে ফেব্রুয়ারী পালন করলো লন্ডন এন্টারপ্রাইজ একাডেমীর শিক্ষার্থীরা

226
gb

ইব্রাহিম খলিল ||  লন্ডন ||

লন্ডনে একুশের প্রভাত ফেরিতে অংশ নিয়েছে ইস্ট লন্ডনের সেকেন্ডারী ফ্রি স্কুল লন্ডন এন্টারপ্রাইজ একাডেমী । স্কুলের ইয়ার সেভেনের বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থী ও অভিভাবক কর্মাশিয়াল স্ট্রীটের স্কুল ক্যাম্পাস থেকে এডলার স্ট্রীটে আলতাব আলী পার্কের কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে গিয়ে উপস্থিত হন। সেখানে তারা শহিদ বেদিতে ফুল দিয়ে ভাষা আন্দোলনের সূর্য সন্তানদের স্মরন করেন। এর আগে সকালে স্কুল এসেম্বলিতে শিক্ষার্থীরা ইউনেস্ক ঘোষিত আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা বাংলার বিভিন্ন ইতিহাস নিয়ে আলোচনা করেন।


স্কুলের হেড বয়কে সাথে নিয়ে প্রিন্সিপাল আশিদ আলী শহিদ বেদিতে লন্ডন এন্টারপ্রাইজ একাডেমীর পক্ষে ফুল দেন। এ সময় বাংলা প্রিন্সিপাল আশিদ আলী, ভাষা রাষ্ট্রভাষা হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়ার ইতিহাস এবং বায়ান্নোর ভাষা আন্দোলনে শহিদ সালাম, বরকত, রফিক ও জব্বারসহ নাম না জানা শহিদদের সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরেন। তবলা বাজিয়ে দুই বার গিনেজ ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়ন সুদর্শন দাশ, ইয়ার সেভেন প্রধান শিক্ষক মি. কবির ও ইতিহাস বিষয়ের প্রধন শিক্ষক মি ভেভিস অনুষ্ঠানের সার্বিক আয়োজনের দায়িত্ব পালন করেন।
প্রিন্সিপাল আশিদ আলী বলেন, পৃথিবীর সবচেয়ে ডাইভার্স কালচারের সিটি লন্ডনে বাংলা ভাষার গুরুত্ব শিক্ষার্থীদের কাছে তুলে ধরতেই তিনি এই উদ্যোগ নিয়েছেন। বাংলা এমন একটি ভাষা যে ভাষার জন্য মানুষ রক্ত দিয়েছে। অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছে। শিক্ষার্থীদের এই ইতিহাস জানা উচিত। বৃটেনের সমাজও ভিন্ন সাংস্কৃতি, ভিন্ন ভাষা এবং ভিন্ন মতকে সম্মান করে।
পরে ভাষা শহিদদের স্মরনে আলতাব আলী পার্কে শিক্ষার্থীরা এক মিনিট নিরবতা পালন করেন।

এদিকে আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে স্কুল ক্যাম্পাসে ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক-শিক্ষিকা এবং অভিভাবকদের নিয়ে এক আলোচনা সভা, চিত্রাংকন, কবিতা আবৃতির প্রতিযোগিতা আয়োজন করে লন্ডন এন্টারপ্রাইজ একাডেমী।