সুন্দরগঞ্জে শিক্ষা অফিসারের বিরুদ্ধে বিধি বহিভূত ভাবে শিক্ষক বদলির অভিযোগ

237
gb

 

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা ||

গাইবান্ধা সুন্দরগঞ্জ উপজেলারশিক্ষা অফিসারের বিরুদ্ধে হাই কোর্টের আদেশ অমান্য এবং সরকারিবিধি বহিভূত ভাবে নব ঘোষিত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়েরপ্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষকে সহকারি শিক্ষক দেখিয়ে বদলি করার অভিযোউঠছে।উপজেলার মধ্য শান্তিরাম নব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতাপ্রধান শিক্ষক আব্দুল আজিজ সরকারকে গত ১৫ ফেব্ধসঢ়;রুয়ারী উপজেলাশিক্ষা অফিসার হারুন উর রশিদ স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে সহকারিশিক্ষক হিসেবে চর খোর্দ্দা নব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিধিবহিভূত ভাবে বদলি করে। রোববারের মধ্যেই তাকে যোগদানের নির্দেশদেয়া হয়েছে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ-সচিব সারোয়ার মাহমুদস্বাক্ষরিত এক পরিপত্রে বলা হয়েছে গত ১৪/৭/২০০৮ সালের পূর্বে যারাপ্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেছেন বা বর্তমানে দায়িত্ব পালন
করছেন তারা স্বপদে বহাল থাকবেন।এছাড়া নব ঘোষিত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নন গেজেটভূক্তপ্রধান শিক্ষকগণ হাই কোর্টে রিট করেন। রিট পিটিশন নং১৬০৫৮/১৬। হাই কোর্টের আদেশে বলা হয়েছে মামলা নিষপত্তি না হওয়া
পযন্ত প্রধান শিক্ষকগণের বদলি স্থগিত এবং তারা স্বপদে বহাল থাকবেন।বর্তমান শিক্ষা অফিসার গত ১৪ জানুয়ারী ওই শিক্ষকের প্রধান শিক্ষকহিসেবে যাবতীয় বকেয়া বেতন প্রদান করেন।অথচ এক মাসের ব্যবধানে শিক্ষা অফিসার ওই প্রধান শিক্ষককে সহকারি
শিক্ষক হিসেবে বদলি করেন। অভিযোগে বলা হয়েছে ম্যানেজিংকমিটি গঠন এবং দপ্তরী কাম প্রহরী নিয়োগ নিয়ে স্থানীয় কিছুসংখ্যক প্রভাবশালী মহলের মিথ্যা অভিযোগের ভিত্তিতে শিক্ষা অফিসারতাকে বিধি বহিভূত ভাবে বদলি করে। বদলি স্থগিতের জন্য প্রধান শিক্ষকআব্দুল আজিজ সরকার জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারসহ বিভিন্ন দপ্তরেঅভিযোগ করেছেন।এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা অফিসার বলেন, উদ্ধতন কতৃপক্ষের আদেশেতাকে বদলি করা হয়েছে। সহকারি শিক্ষক হিসেবে তার গেজেট হয়েছে। সে কারনে তাকে সহকারি শিক্ষক হিসেবে বদলি করা হয়। হাই কোর্টযদি তাদেরকে প্রধান শিক্ষক হিসেবে বহাল করে তাহলে তারা প্রধানশিক্ষক হিসেবে পদ মর্যদা পাবেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএমগোলাম কিবরিয়া জানান, বিষয়টি আমার সঠিক জানা নাই ।তবে ২/১ দিনের মধ্যে শিক্ষা কমিটির মিটিং হওয়ার কথা রয়েছে।সেখানে বিষয়টি আলোচনা করা হবে। জেলা শিক্ষা অফিসার আমিরুলইসলাম মন্ডল বলেন হাই কোর্টের কোন আদেশের কপি আমাদের কাছেআসে নাই।এনিয়মে সব জায়গায় বদলি চলছে।