গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ ও কসোভো প্রজাতন্ত্রের মধ্যে আনুষ্ঠানিক কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন

617
gb

হাকিকুল ইসলাম খোকন :

গত ১৬ ফেব্রæয়ারি বাংলাদেশ ওকসোভোর মধ্যে আনুষ্ঠানিক কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন বিষয়ে যৌথবিবৃতি (ঔড়রহঃ ঈড়সসঁহরয়ঁল্কং) সাক্ষরিত হয়।নিউইয়র্কস্থ বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনে জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশেরস্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন ও নিউইয়র্কস্থ কসোভোরকনসাল জেনারেল রাষ্ট্রদূত মিজ টেউটা সাহাতকাইজা (ঞবঁঃধ ঝধযধঃয়রলধ) স্ব স্বদেশের সরকারের পক্ষে এই যৌথ বিবৃতি সাক্ষর করেন। বিবৃতি সাক্ষর শেষে উভয়দেশের প্রতিনিধির সাক্ষরে একটি প্রেস রিলিজ ইস্যু করা হয়।এই যৌথ বিবৃতি বাংলাদেশ ও কসোভোর মধ্যে বন্ধুত্বের সূদৃঢ় সম্পর্করচনা করবে, পারস্পারিক সহযোগিতার দিগন্ত বিস্তৃত করবে এবংআন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষার ক্ষেত্রেও অবদান রাখবে মর্মে দুই দেশেরপ্রতিনিধি প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। বিবৃতিটি সাক্ষরের মাধ্যমে উভয় দেশ জাতীয়সার্বভৌমত্বের প্রতি পারস্পারিক শ্রদ্ধা ও আঞ্চলিক সংহতি বজায় রাখা, অন্যরাষ্ট্রের আভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করাসহ জাতিসংঘের নীতিমালা এবং
আন্তর্জাতিক আইনসমূহের প্রতি তাদের অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করল।উল্লেখ্য, গত বছর ফেব্রæয়ারি মাসে বাংলাদেশ কসোভোকে সরকারিভাবেস্বীকৃতি দেয়। এছাড়া গত সেপ্টেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘ সাধারণপরিষদের ৭২তম অধিবেশন চলাকালীন কসোভোর রাষ্ট্রপতি হাসিম থাচি (ঐধংযরসঞযধম্ফর) এর সাথে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।আগামী ১৭ ফেব্রæয়ারি থেকে কসোভোতে শুরু হবে এর স্বাধীনতাঘোষণার ১০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠানমালা যাতে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম অংশগ্রহণ করবেন এবং বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের
নেতৃত্ব দিবেন।