সারাদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ধর্মঘটের ডাক এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের

540
gb

জিবিনিউজ ডেস্ক //

জাতীয়করণের দাবিতে রোববার সারাদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ধর্মঘট পালন করবেন এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা।

শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে চলমান অনশন কর্মসূচির মধ্যে এ কর্মসুচি ঘোষণা করেন তারা।

গত ১৫ জানুয়ারি থেকে তারা অনশন করছেন। এর আগে গত ১০ জানুয়ারি থেকে শিক্ষক-কর্মচারীদের ৬টি সংগঠনের জোট ‘বেসরকারি শিক্ষা জাতীয়করণ লিয়াজোঁ ফোরাম’ ব্যানারে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। শনিবার বিকেলে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত অনশনে ৭৭ শিক্ষক অসুস্থ হয়েছেন বলে জানিয়েছেন শিক্ষক নেতারা।

লিয়াঁজো ফোরামের যুগ্ন আহ্বায়ক সাইদুল হাসান সেলিম বলেন, ‘বেসরকারি শিক্ষকরা সমান পরিশ্রম করার পরেও তারা আজকে সরকারি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের সমান সুযোগ সুবিধা পাননা। আজকে দেশের ৯৭ ভাগ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের বঞ্চনা করা হচ্ছে। শিক্ষা ব্যবস্থার বৃহৎ অংশ বঞ্চনার মধ্যে রেখে দেশের উন্নয়ন সম্ভব না। বেসরকারি শিক্ষকরা কনকনে শীতের মধ্যে খোলা আকাশের নিচে জাতীয়করণের এক দফা দাবিতে অনশন করে যাচ্ছে। শনিবারের মধ্যে যদি জাতীয়করণের ঘোষণা না দেওয়া হয়, তাহলে রোববার সারাদেশের সব বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ধর্মঘট পালন করা হবে। আর রোববারেও যদি জাতীয়করণের সুনির্দিষ্ট ঘোষণা না দেওয়া হয় তবে অনশনের পাশাপাশি সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে টানা ধর্মঘট কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।’

লিয়াঁজো ফোরামের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আমরণ অনশনের ষষ্ঠ দিন অতিবাহিত হওয়ার পরও সরকারের তরফ থেকে কোনো সাড়া মেলেনি। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদে জাতীয়করণ সংক্রান্ত ইতিবাচক বক্তব্য দিয়েছেন। সুস্পষ্ট নীতিমালা ও সময়সীমা ঘোষণা করে শিক্ষকদের দাবি পূরণের আহ্বান হয় বিবৃতিতে।

এদিকে শনিবার দুপুর ১২টার দিকে শিক্ষকদের অনশন কর্মসূচিতে গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ আহমেদ সাকি সংহতি প্রকাশ করেন