Bangla Newspaper

ব্যথানাশক বহন করে মৃত্যুর মুখোমুখি ব্রিটিশ নারী!

79

জিবিনিউজ24 ডেস্ক:

মাদক পাচারকারী সন্দেহে এক ব্রিটিশ নারীকে আটক করেছে মিসর।  ৩০০ ব্যথানাশক ট্রামাডল বড়ি বহনের দায়ে লরা প্লামার (৩৩) নামের ওই ব্রিটিশ নারীকে আটক করা হয়। তিনি এখন মিসরের কারাগারে  বন্দি। এ ওষুধ বহনের দায়ে তাঁর মুত্যুর আশঙ্কা করছে পরিবার।

লরার স্বামী ওমর কাবু মিসরে থাকেন। এক মাস আগে লরা তাঁর স্বামীর জন্য ওষুধ নিয়ে মিসরে যান। সে দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাঁকে ব্যথানাশক ওষুধসহ আটক করে। মিসর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এ ওষুধটি হেরোইনের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

লরা প্লামার বিবিসিকে বলেন, তিনি তাঁর জীবনের জন্য ভীত নন। কিন্তু  এটা ভেবে নিজেকে বোকা মনে হচ্ছে যে তিনি জানতেন না যে ব্যথানাশক ওষুধ নিয়ে মিসরে প্রবেশ অবৈধ। লরা আরো বলেন, এই বড়িগুলো তাঁর স্বামীর ব্যথার ওষুধ হিসেবে ব্যবহারের জন্য তাঁর এক সহকর্মী তাঁকে দিয়েছিলেন।

ব্রিটিশ পত্রিকা দি সানকে লরা বলেন, তাঁর কাছে পুরো বিষয়টা হাস্যকর মনে হয়েছে। তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তাঁকে  ১৫ ফুট আয়তনের একটি ঘরে অন্য ২৫ নারীর সঙ্গে থাকতে হচ্ছে।

লরার বাবা-মা বলেন, ব্রিটিশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাঁদের মেয়ের সাহায্যের ব্যাপারে তেমন গুরুত্ব দিচ্ছে না।

এদিকে, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বলেন, তাঁরা মিসরে আটক থাকা ওই নারী এবং তাঁর পরিবারকে সাহায্য করছেন।

লরার বাবা নেভিল প্লামার ডেইলি মেইলকে বলেন, ‘বাবা হিসেবে আমি অসহায় হয়ে পড়েছি। কারণ আমি শুনেছি আমার মেয়ে বলেছে, দরকার হলে তাকে কেউ বের করে তার গলা কেটে দিক।’ তিনি আরো বলেন, ‘অনেকদিন হলো সে কারাগারে আছে। আমি জানি না তার মানসিক অবস্থায় কেমন।’

লরার মা রোবের্টা সিনক্লেয়ার বলেন, মামলার শুনানির দিন স্থগিত এবং ফৌজদারি আইনে তাঁর বিচার করা হবে জানতে পেরে তাঁর মেয়ে মর্মাহত হয়েছেন।

Comments
Loading...