Bangla Newspaper

নির্বাচনের আগে হোল্ডিং ট্যাক্স বাড়িয়ে ভোট নষ্ট করা হচ্ছে

19

জিবিনিউজ24 ডেস্ক:

রাজধানী ঢাকা শহরে হোল্ডিং ট্যাক্স বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিটি কর্পোরেশন। নাগরিক সুবিধা বৃদ্ধি না করে এভাবে হোল্ডিং ট্যাক্স বাড়ানোর সিদ্ধান্তে সংসদে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিরোধী দল জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ।

আজ সোমবার রাতে জাতীয় সংসদে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে ফিরোজ রশিদ বলেন, নির্বাচনের আগে এভাবে ট্যাক্স বৃদ্ধি করে ভোট নষ্ট করছে, ওরা কারা? এরআগে বিকেলে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে দিনের কার্যসূচি শুরু হয়।

বিভিন্ন মাধ্যমের খবরের উদ্দৃতি দিয়ে ফিরোজ রশিদ বলেন, ৩০০ থেকে এক হাজার শতাংশ হোল্ডিং বৃদ্ধি করা হয়েছে। এনিয়ে প্রতিদিন আন্দোলন, সংগ্রাম হচ্ছে। একটা বিব্রতকর অবস্থা। নির্বাচন সামনে, এই মুহূর্তে ট্যাক্স বাড়ালো যারা তারা কী ভোট নষ্ট করার গভীর ষড়যন্ত্র করছে? সরকারের মধ্যে ওরা কারা? এত বছর মনে পড়লো না ট্যাক্স বাড়ানোর কথা, অথচ নির্বাচনের সামনে ট্যাক্স বাড়িয়ে সমসত্ম ঢাকা শহরকে অশান্ত করে দিয়েছে।

এ সময় তিনি উদাহরণ টেনে বলেন, ধানমণ্ডি এলাকার ৬টি থানা রয়েছে। এখানকার বাড়িওয়ালারা বলেছেন, বাস্তব সম্মত না হলে কোনো গৃহকর তারা দেবেন না। ট্যাক্স বাড়ান যারা ওয়াসার পানি নষ্ট করে গাড়ি ধৌত করছেন। মনে রাখতে হবে, ভোট তো তাদের হাতে।

এখন ট্যাক্স বাড়ালেন ভোটের সময় তাদের কাছেই যেতে হবে। আমরা ধরতে না পারলেও তাদের কাছে ধরা দিতে হবে।

তিনি আরো বলেন, সম্পূর্ণ নাগরিক সুবিধা নেই। একটু বৃষ্টি হলে হাঁটু পানি হয়ে যায়। মশা, ডেঙ্গু জ্বর, পানি এরকম হাজারো সমস্যা রয়েছে। এসব নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত না করে হোল্ডিং ট্যাক্স বাড়াতে পারে না। এত হারে ট্যাক্স বৃদ্ধি করা হয়েছে যার বছরে ৯ লাখ টাকা দিতে হতো তার এখন দিতে হচ্ছে ৬৫ লাখ টাকা! এসব বলব কার কাছে। আল্লাহ ছাড়া কাউকে বলার কিছু নেই। তবে আমরা না ধরলেও ধরবে জনগণ।

Comments
Loading...