Bangla Newspaper

যার ছোঁয়ায় প্রান ফিরে পেয়েছে ঝিনাইদহ জেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ

17

 

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ

প্রাণ ফিরে পেয়েছে ঝিনাইদহ পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ। যার ছোয়ায় এটা সম্ভব হয়েছে তিনি হলেন জেলার পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক ডাঃ মোঃ জাহিদ আহম্মেদ। নিজেই যিনি আলোকিত তা নয় অন্যকেও তাঁর আলোয় পথা দেখাতে সিদ্বহস্ত। ২০১৪ সালের সমগ্র বাংলাদেশ হতে রতœগর্ভা খ্যাতি অর্জনকারী মিসেস মাহমুদা বেগম ও বিশিষ্ট সমাজসেবক ও দানবীর ডাঃ নাসির উদ্দিন আহম্মেদ এর ৩ ছেলে ও ৩ মেয়ের মধ্যে ডাঃ জাহিদ আহম্মেদ সকলের ছোট। ঝিনাইদহ জেলার কালীচনপুর ইউনিয়নের ভগবানপুর গ্রামের তাঁর পৈতিক ভিটা। ২ ভাই ঝিনাইদহ ক্যাডেট কলেজ ও ৪ ভাইবোন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করেছেন। ডাঃ জাহিদ আহম্মেদ ঐতিহ্যবাহী ঝিনাইদহ ক্যাডেট কলেজ এর অন্যতম মেধাবী ছাএ এবং ঢাকা মেডিকেল কলেজে ভর্তি পরিক্ষায় সম্মলিত মেধা তালিকায় ১ম স্হান অধিকার করেছিলেন। এছাড়াও তিনি ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসনে মুল্যায়ন তালিকায় জেলায় ২০১৬ সালে শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তার সম্মাননা অর্জন করেন। আদর্শ পিতামাতার আদর্শ সন্তান ঝিনাইদহের কর্মষ্ঠ, সৎ, পরিছন্ন ডাঃ জাহিদ আহম্মেদ ব্যক্তিগত, পারিবারিক ও সামাজিক জীবনে সকলের নিকট রয়েছে তাঁর ব্যাপক গ্রহনযোগ্যতা। নিজ গ্রাম হতে শুরু করে জেলার প্রতিটি জনপদে রয়েছে তাঁর হাতের উন্নয়নের ছোঁয়া। এমনকি চাকুরী জীবনে সহকর্মীদের নিকট পিতার মতো মান্যবর তাঁর সহকর্মীদের কাছে । ডাঃ জাহিদ আহম্মেদ আপন কর্মগুনে গুনান্বিত ও স্বমহিমায় চিরভাস্বর হররোজ। প্রবাহমান নদীর মতো ডাঃ জাহিদ আহম্মেদ। রাস্তাঘাট, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা,মসজিদ, মন্দির কবরস্হান উন্নয়ন ছাড়াও তিনি গরীব অসহায় হত দরিদ্র সকলের নিকট দানবীর হিসেবে পরিচিত। ২ বোনাসের টাকা তুলে ডাঃ জাহিদ আহমেদ ঈদে অসহায় গরীবদের মাঝে বিতরন করেন। অত্যন্ত পরিছন্ন, অমায়িক ও মধুর ব্যবহার ডাঃ জাহিদ আহম্মেদ জীবন্তকিংবদন্তী ঝিনাইদহ জেলার পরিবার পরিকল্পনা বিভাগে। পেশায় তিনি ডাকসাইটে চিকিৎকস হলেও তাঁর কোন চেম্বার নেই। ২০১১ সাল হতে ডাঃ জাহিদ আহম্মেদ ঝিনাইদহ জেলার পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপপরিচালক এর দায়িত্বভার গ্রহনের পর থেকে ওই বিভাগকে ঢেলে সাজিয়েছেন। তড়িৎকর্ম এই প্রশাসক দায়িত্বভার গ্রহনের পর থেকে সঠিক নেতৃত্ব ও গঠনমুলক পরামর্শক জেলার ৬ টি উপজেলার প্রতিটি জনপদে বিচরন করে একের পর এক স্হানীয় প্রশাসনকে গতিশীল করার মাধ্যমে সুশাসন প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি তিনি সাফাল্যের বিজয়ের মালা পরিয়েছেন নিজে সহ ডিপার্টমেন্ট কে। যা ঝিনাইদহ জেলার পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ ২০১২ হতে ২০১৬ পযর্ন্ত মা ও শিশু কল্যান কেন্দ্র ( গঈডঈ) খুলনা বিভাগের মধ্যে টানা পাঁচ পাঁচ বার প্রথম হয়েছে । যা বাংলাদেশে নজিরবিহীন। এছাড়াও কীর্তিমান ডাঃ জাহিদ আহম্মেদ জেলা প্রশাসন কর্তৃক কালেকক্টর স্কুল ও কলেজ প্রতিষ্ঠিত হওয়ার সময়ে ২০ হাজার টাকার অনুদান দিয়েছেন। এমন অনুদানের উদাহরন ভরি ভরি ডাঃ জাহিদের কর্মময় জীবনে। সুহুদয়বান ডাঃ জাহিদ আহমেদ অনন্য নজির স্হাপন করেছেন ৩য় ও ৪র্থ শ্রেনির কর্মচারী নিয়োগের সময়। তিনি নিয়োগপত্র শতকরা ৯৫ ভাগই দরিদ্র কৃষক পরিবারের সন্তান। ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছেন এই নিয়োগ কে কেন্দ্র করে ডাঃ জাহিদ আহমেদ। ডাঃ জাহিদ আহমেদ এর সাফাল্যের উল্লেখযোগ্য হলো জাতীয় পর্যায়ে পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রম স্হায়ী ও দীর্ঘ মেয়াদি পদ্বতির লক্ষ্যমাত্রা ২০% ছাড়িয়ে ২৩.৩২% অর্জন করেছেন। বাংলাদেশের সার্বিক প্রজনন হার২.৩। সেখানে ঝিনাইদহ জেলায় প্রজনন হার ১.৬। পরিবার পরিকল্পনা কর্তৃক আয়োজিত বিশেষ সেবা সপ্তাহে ঝিনাইদহ জেলা জাতীয় পর্যায়ে ২য় স্হান অধিকার করে রেকর্ড অর্জন করেন। জনবল সংকট থাকা সত্বেও পরিবার পরিকল্পনা কর্মসুচির স্বাভাবিক কার্যক্রমের পাশাপাশি কমিউনিটি ক্লিনিক, ইপি আই, আশ্রয়ণ, উঠান বৈঠক,বিদ্যালয় স্বাস্হ্য শিক্ষা অন্ষ্ঠুানে কর্মীদের শতভাগ অংশগ্রহন নিশ্চিতকরন করা হয়। এছাড়াও উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কমিটি, ইউনিয়ন স্বাস্হ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্র পরিচালনা কমিটি, স্যাটেলাইট ক্লিনিক পরিচালনা কমিটি সহ মাঠ পর্যায়ে বিভিন্ন কমিটিকে সক্রিয় করার ব্যবস্হা গ্রহন করার কারনে জেলার পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রম পূর্বের চেয়ে ও বর্তমানে আর ও বেগবান হয়েছে। সফল প্রশাসকের পাশাপাশি তিনি মেধাবী আইনের ছাএী মীর্জা রুনা আইরিন কে বিয়ে করে তাঁর সফল দাম্পত্য জীবনের ২ সন্তানের জনক। নিরন্তর শুভ কামনা ও লাল গোলাপের শুভেছা জেলার পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের এই সফল ও আলোকিত উপপরিচালক ডাঃ জাহিদ আহমেদ কে। উন্নয়নের মহাসড়ক ও ডিজিটাল বাংলাদেশে বির্নিমানে এগিয়ে নিয়ে যাবেন ঝিনাইদহ জেলার পরিবার পরিকল্পনা বিভাগকে সকলের প্রত্যাশা এই মহৎ ও হুদয়বান দায়িত্বশীল পরিচালক ডাঃ জাহিদ আহমেদ।

Comments
Loading...